Thursday, April 25, 2013

মানবিকতার কারনে, অর্থনৈতিক কারনে আমাদের উচিত এ ধরনের সকল দুর্ঘটনা থেকে বাচার চেষ্টা করা।



স্তব্ধ আমি। মানবিকতার কারনে, অর্থনৈতিক কারনে আমাদের উচিত এ ধরনের সকল দুর্ঘটনা থেকে বাচার চেষ্টা করা।

এই গার্মেন্টস সেক্টর থেকেই আমাদের দেশের প্রধান আয় হয়। সামান্য (?) ভুল হলে যেখানে এতোগুলো মানুষ বিপদে পরে, একে আমরা এতো হেলা করতে পারিনা। এবং এই সেক্টরে যে কোন ক্ষতি হলে সেটা হবে পুরো দেশের আয়ের ক্ষতি।

আমার মনে হয়, আমাদের সরকারী ভাবে মনিটরিং সেল গঠন করা উচিত। যেখানে মালিক, শ্রমিক, এনভাইরনমেন্ট স্পেশালিস্ট, ডাক্তার, ইন্জিনিয়ার, বাইয়ার, লইয়ার, পুলিশ এদের সবাইকে নিয়ে গঠিত হবে। যারা নির্ধারন করবেন, এবং নিয়মিত পরীক্ষা করবেন যে তাদের নির্ধারিত সব নিয়ম কানুন মেনে চলা হচ্ছে কি না। যে কেউ এই সেলে তাদের অভিযোগ করতে পারবেন এবং সবার অভিযোগই ক্ষতিয়ে দেখা হবে। হতে পারে সেই অভিযোগ ইভ টিজিং নিয়ে, বেতন নিয়ে বা সন্ত্রাসী কার্যকলাপ নিয়ে। প্রয়োজনে এই কমিটি সরকারকে নতুন আইন প্রনোয়োনের সুপারিশ করতে পারবে।

এরপরে যে কোন সমস্যা হলে এই কমিটি সরাসরি দায়ভার বহন করবে। এবং যারা যতখানি দোষী, তদন্ত করে তাদের সেই অনুসারে শাস্তির সুপারিশ করবে পুলিশকে এবং পুলিশ সেটা গ্রহন করবে।

আমি জানি আমাদের দেশের কোন কমিটিকেই দূর্নীতি মুক্ত রাখা সহজ নয়, তারপরও চেষ্টা তো করে দেখতে পারি?

সেই সাথে আমাদের দেশের ফায়ার সার্ভিসকে আরো উন্নত মেশিনারী এবং যথেস্ট পরিমান সামগ্রী দিয়ে ঢেলে সাজানো দরকার, যেন তারা যে কোন বিপর্যয়ে সঠিকভাবে সাহায্য করতে পারে।
Post a Comment