Saturday, June 29, 2013

We have to prepare from flood

My youngest sister's daughter Dia, She was 2 years and 4 months old when the picture is taken.

From our past experience, we have seen whenever India gets effected by flood, after while we have also faced that. Because we all know, all water will pass through Bangladesh to the sea. So, we have to prepare from the coming water. Especially on river barrier, towns, drainage system, paddy fields etc. I think all of us have enough experience of this flood situation. If we stay alert and take necessary steps before the flood we can prevent (in some cases) and minimize its destruction. 

Friday, June 28, 2013

দুনিয়াতে মেয়েদের মন পাবার জন্য খুব বেশি করার দরকার নেই।


অনেকেই বলেন, মেয়েদের মন বোঝা যায় না, মেয়েরা যে কি চায় কিছুই বোঝা যায় না। আমি বলব? মেয়েরা চায় একটু সম্মান। ভাবছেন, সে তো পায়ই। নাহ পায় না।

একটা ছেলে যখন একটা মেয়েকে দেখে, তখন শারিরীক কারনেই প্রথমত: আকর্ষন অনুভব করে। খারাপ কি, এটাই স্বাভাবিক। তারপর তাকে পাবে না জেনে বা পাবার জন্যই নানা রকম কাজ কর্ম করতে থাকে। এতেও দোষের কিছু দেখিনা। কথা হলো সেই কাজকর্মগুলো কি? কোকিলের মতো শীষ বাজানো, কি ভেবে করে, এই সুরেলা সুর শুনে মেয়েটা মুগ্ধ হয়ে যাবে বা তার দৃষ্টি আকর্ষন করা যাবে? অথবা নিজের হেরে গলা ছেড়ে গান? বাজে কুরুচিপুর্ন মন্তব্য যাতে মেয়েটা অসস্তিবোধ করে। তাই দেখে আনন্দ নেয়া। চোখ দিয়ে কাপড়ের উপরে যতটা সম্ভব শরীরের নানা অংশ বোঝার চেস্টা করা? যাতে মেয়ে খুব আনন্দ বোধ করে?

আসলেই কি মেয়েরা এসব পছন্দ করে? না। তাহলে মেয়েদের আকর্ষন করার জন্য এসব কেন?

অনেকে বলেন, আমরা একটা পাইনা আর এই ছেলে একের পর এক মেয়ে পটিয়ে যাচ্ছে। মেয়েরা এই কুদর্শন ছেলের মধ্যে যে কি দেখে, সব এর জন্য পাগল। বলছি, কি ভাবে এই ধরনের ছেলেকে, কেন এতো মেয়ে পছন্দ করে। মেয়েদের প্রতি সম্মানবোধ। সেটা যদি মন থেকে নাও দিতে পারেন, তো অন্তত: উপর দিয়ে বা সামনা সামনি ভাবে দেখান, এটাও জেনেশুনেই মেয়েরা পছন্দ করে।

বাসে প্রচন্ড ভীড়, সবাই দাড়িয়ে থাকা মেয়েটা আরো বেশি ঢাক্কা দিচ্ছে, এসময় যে ছেলেটা পাশে দাড়িয়ে ঢালের মতো মেয়েটাকে বাঁচিয়ে দিবে, মেয়েরা তাকে পছন্দ করবে। সবাই একসাথে পিকনিকে যাচ্ছে, সবচেয়ে ভাল সিট দখল করে আপনি বসে থাকলেন আর মেয়েরা কষ্ট করে পিছনের সিটে বসল। কি ভাবছেন মেয়েরা আপনাকে বীর পুরুষ ভাবছে? নাকি ওদের সামান্য সুবিধাটুকু দিয়ে আপনি দাড়িয়ে থাকলে ওদের চোখে আপনার সম্মান বাড়বে?

এমনি নানা খুব ছোটখাট সুবিধা আছে, যা আপনার না হলে তেমন কিছু আসে যায় না, অথচ মেয়েদের জন্য বেশ বড় ইস্যু। এটা মনে রাখবেন। ভাড়ি কোন জিনিস ক্যারি করে দেয়া, গেইটা খুলে দাড়িয়ে আগে ঢুকতে দেয়া, আর কিছু না হোক, রাস্তায় কাউকে বিরক্ত না করা বা ঢাক্কা না দেয়া এসবও  অনেক। আপনি মেয়েদের স্বাধীন ভাবে চলতে দিন, পারলে সাহায্য করুন। দেখবেন মেয়েরা খুব সুন্দর ভাবে সহজে আপনার সাথে মিশছে, কথা বলছে। দুনিয়াতে মেয়েদের মন পাবার জন্য খুব বেশি করার দরকার নেই।

তবে আপনি যদি কোন মেয়ের, সবচেয়ে প্রিয় আসন স্থায়ী ভাবে পেয়ে যান, তাহলে অবশ্য এরপর আরো অনেক কিছু যোগ হবে। কারন সাড়া দুনিয়ার সুখ সে তখন আপনার কাছ থেকে পাবার আশা করবে। আর তার এই ভালবাসা ধরে রাখার জন্য আপনাকে যথাসাধ্য চেষ্টা করতে হবে। না হলে, ধীরে ধীরে না পাবার কষ্ট মেয়েদের মনে বসে যায়। সে, না সুখি হতে পারে, না আপনাকে সুখি করতে পারবে। আর সম্মান দেখানোতে আপনার সম্মান কমবে না।

Thursday, June 27, 2013

Go near the TV screen

Shafeen was 2 years and 1 month old.



When you are responsible to raise a child, you have to concentrate on every little detail which is related to him, like what can be harmful for them, what can give them better health etc. My son likes to watch TV, the only thing he likes to see over there in cartoon. When he gets very exited on cartoon’s story, he couldn't stop himself to go near the TV screen, no matter how many times you ask them not to do so, it may harmful for your eyes. 

Wednesday, June 26, 2013

Nobody wants to see “Rana plaza” incident in school

In front of Shafeen's school, picture was taken before picnic day

I go with my son to his school wait outside of the school and then bring him back. This is a regular duty. The school gives some plastic chairs to its portico where we use to sit and wait. Today while we were waiting outside suddenly a big destructive sound come to our ear. First we couldn't understand from where and why it is coming. Then the gate man said, oil finished in the generator that’s why its making this kind of noise, we are giving oil in it.

Two moms among us stand up and went to the gate; they wanted to bring out their kid from the school. Nobody wants to see “Rana plaza” incident once again. Again the gate man keep them out. He was closing the collapsible gate. But moms said, no you can’t do it. If anything happen, we should let the kids go out. The gate man was laughing for this anxious. But I really didn't like this incident. Really anything could have happened today.

My suggestion to all, if you need to run fans and lights or no big machinery in the power cut, then please use IPS. Batteries are much safer, easy to maintain and cost effective. If any mistake happens with the generator, it could cause very big trouble.


A mom were saying if anything happen to my kid, I will break part by part this **** **** school. I have only one son. On those moment I was thinking if anything starts to happen how I will run into the building and bring back my son, with as many kid as possible, will take my bag too, it has a strong pen, should be helpful to break things if needed…..etc.

Tuesday, June 25, 2013

সেহেরীতে ডাকিনি

এই হালুয়া রুটি বড়পা পাঠিয়েছে শবেবরাত উপলক্ষ্যে।

ছোট বেলায় আমার আব্বা-আম্মা আমাদের রোজা রাখতে দিতে চাইতেন না। তাদের ধারনা ছিল আমরা অসুস্থ হয়ে পড়ব। বড়পা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে সেহেরা না খেয়েই (সেহেরি খেতে ডাকা হতো না) রোজা রাখা শুরু করলো। আব্বা আম্মা বাধ্য হয়ে তাদের নীতিতে পরিবর্তন আনলেন। আমরাও রোজা রাখা আরম্ভ করলাম। আমি নিয়মিত রোজা রাখতে পেরেছি ১৬ বছর বয়স থেকে।

গতকাল ছেলে শবেবরাত কি আর রোজা কি এসব নিয়ে কিছু জ্ঞান লাভ করার পর জানালো সে রোজা রাখবে। বয়স সাড়ে চার বছর হলে কি হবে, আমি রাজি হয়ে গেলাম। বেশ যতক্ষন পারো রাখ। কিন্তু ছেলে রাতে ঘুমালো ১টায়, এখন রাত ২টায় আমি মা হয়ে কিভাবে ডাকি। তাই বেচারার আর সেহেরি খাওয়া হলো না। ঘুম থেকে উঠে ছেলে কি বলে এখন সেটা হলো দেখার বিষয়।

Monday, June 24, 2013

“I want that tiger that doesn't have hands or legs”

Shafeen was 2 years and 1 month old, when this picture was taken.


My elder sister’s son Tameem was a very small kid when I took him to the “Shishu Park”, Shahbagh, Dhaka. It was before my marriage. His mother didn't want to take him anywhere, because he always causes some trouble. I don’t know why, he generally listens to me. Before taking him any where I use to make him some promises. Like, you can’t cry for anything, if you do so I will bring you back home immediately. And he knew that I always keep my word.


We enjoyed good times in Shishu Park. After returning home he started crying to his mother by saying “I need that tiger, which doesn't have hands, legs or body, please buy one for me”. People couldn't understand what he is saying and actually what he wants. After some moment I realize that he is asking for a tiger mask! He couldn't ask this in the park as I make him some promises.

Sunday, June 23, 2013

I believe in freedom.


I believe in freedom. Freedom to work, go anywhere or taking decision. You may think I am talking about women freedom. Well, I am a woman, so women will come first, that’s for sure. But here I am talking about freedom of all creatures. Even the ant which is walking on my floor, it should have freedom to find food and eat.

And everything has a border line. You shouldn't cross that. I can allow that Ant to find food from my dustbin. Not in my bed room. You can’t have freedom which cost trouble to other or even you. All don’t understand this; they think they can do anything, they want that is freedom. I never force anybody to take my decision; neither have I liked other people’s force to choose their path.

Even you can love any person, but can’t cheat your partner. You can help other, but for helping can’t take money from there where someone else has right. You can spend your time anywhere you want, but can’t avoid them who has right to have your time.

And I also believe, if anyone miss use their freedom, they have no right to have it. All can’t digest freedom of everything in all age. And no matter how much power a person have they can’t take others freedom.


Moral of the talk: you can do anything, but hurt anybody, not even you.

Saturday, June 22, 2013

আধুনিক মায়ের শিক্ষা


প্লেগ্রুপে পড়ে এক ছেলে। বাড়ি ফিরে মাকে বলল, আম্মু আমি একটা মেয়েকে আজকে ফুল উপহার দিয়েছি। আমি ওর ব্যাগে ভরে দিয়েছি। মা বলল, দেখো সোনামনি, যখনই কাউকে ফুল দিবে, সামনাসামনি হাতে দিবে। কারন মা চিন্তিত, যদি কোনদিন ছেলে কাউকে পছন্দ করে আর এভাবে গোপনে ব্যাগে ফুল ভরে দেয় তো মেয়ে কোনদিনও জানবে না কে তাকে এতো ভালবাসে, এদিকে ছেলে মনে মনে কত কষ্ট পাবে মেয়েটির জন্য। এরচেয়ে যা হবে, সামনাসামনি হবে। তারপর যা হবার হবে। শুধু একা একা মনে মনে কষ্ট পাবার চেয়ে ভাল। আধুনিক মায়ের শিক্ষা :)

Friday, June 21, 2013

Learning how to balance

Shafeen was balancing his car over a plastic drum. He was 2 years and 3 months old.

Shafeen was practicing balancing packets. He was 2 years and 1 month old.


We start learning balancing from our childhood, like, first walking, then with toys and then life. Learning never ends.

Thursday, June 20, 2013

How much a polythene bag cost to a shopkeeper?


In Bangladesh we can’t think shopping without polythene bag. I guess it’s not costly that shop keepers easily give it to the customer free. But some very alert shopkeepers don’t want to expend more or want to use less than it needs. It’s not because of awareness of the environment, it‘s for save money for their own. Let me tell you what I faced. I went to Agora and buy a fish (Rui). I request them to cut it down and deliver to me. They did and gave it in a poly bag, which was covered with fish blood. I said, please put this bag into another poly bag that I can hold it and take it home with other things. The sales man denied. He said no worry madam, in the counter, they will give you cloth’s bag, and you can take it with that. But I again said, with cloth, blood will come out and mess my dress and other things, please just give me a polythene bag. But that sales man denied. Then other sales man also requests him, please give her a bag. The first sales person gave me a poly bag and I could here he was saying to the other sales man, this way how can we do the cost cutting. 

I generally buy eggs from a common shop. He has assistance. Whenever I buy eggs I asked him, please give me two poly bags that the eggs will remain good on the way to my home. He doesn't. When he handovers the eggs to me, I again asked him, please give me another polythene bag. He didn't. Then I had to ask this to the main shopkeeper. He gives instruction to his boy, and then only I can have two poly bags.

Wednesday, June 19, 2013

ভবিষ্যত নিয়ে আমারও একটা পরিকল্পনা ছিল (মানে এখনও আছে, তবে হিমাগারে)


মানুষ ভবিষ্যত নিয়ে ভাবে, সুন্দর পরিকল্পনা করে, আর সেই অনুসারে এগিয়ে যায়, সাফল্য পায়। আমার দেখা মতে মোটামুটি সবাই এভাবেই এগিয়ে গিয়েছে। কারো কারো সময় লাগে, তবে দেখেছি, সবাই মোটামুটি সাফল্যের মুখ দেখেছে। আমি কেন যেন অন্যরকম হয়ে যাচ্ছি। ভবিষ্যত নিয়ে আমারও একটা পরিকল্পনা ছিল (মানে এখনও আছে, তবে হিমাগারে)।
কিন্তু পরিস্থিতির নানা চাপে সব সময় সেখান থেকে সরে আসতে হয়েছে। নানা ওয়াদা, কিছু ব্যর্থতা, কিছু মানুষের অপছন্দতা, কিছু মানুষের হিংসা, কিছু মানুষের ভুল বোঝাবুঝি, কিছু আলস্য, কিছু কাজের চাপ, কিছুটা মানুসিক চাপ সব মিলিয়ে আমি যেন কোথায় হারিয়ে গিয়েছি। এখন দূর ভবিষ্যত দুরে থাক, নিকট ভবিষ্যত নিয়েও ভাববার সময় নেই। বর্তমান আর অতীতের সব কাজের আর চিন্তার চাপে একেবারে চ্যাপটা হয়ে গিয়েছি। ভবিষ্যত? সেটা নিয়ে ভাববার সময় কই। এখনকার পরিস্থিতি তো আগে সামাল দেই...।

Tuesday, June 18, 2013

Shafeen’s garage

Shafeen’s (here he is 2 years and 2 months old) garage

Then added one red car (he was 1 year and 11 months old)

And a scooter (here my son 4 years and 4 months old), he couldn't stop moving so his picture came blur.



Boys means vehicle. No matter from which part of this world they come, the main interesting thing for them is vehicle, especially the car.

Monday, June 17, 2013

Managing money


I am not good in accounting; I mean calculating money and keep all information updated. Though I had to work as an accountant (under guidance) for few days and I understood very well, I didn't born to do this job. But at home, you are everything. Home management means you are the sweeper to Queen. You have to manage and do (if no one else to help you) everything, including accounting. To make everything easy I tried to make small solutions. Right now I am keeping some small bags (old rejected bags) to keep money for different reason, with a small note, mentioned which moneys are for which purpose. It works like a small bank with different kind of account. Well this reminds me; today I might need to go the bank to solve some small issues.

Sunday, June 16, 2013

আমি আমার কথা রেখেছি, কান্নাকাটি করিনা


আজ আমি আব্বাকে নিয়ে কিছু লিখবো না, কারন আমি আর কাদতে চাইনা (লেখা শুরু করলে কান্না থামিয়ে রাখা মুশকিল হবে)। 
বহুসময় আগে, আমি নিজেকে নিজে বলেছিলাম, এই জীবনে যথেস্ট কেদেছি, আর না। আমি আমার কথা রেখেছি, তবু মাঝে মাঝে প্রচন্ড কষ্টে যখন চোখ দিয়ে টপ টপ পানি পড়তে থাকে, আমি আমার জামা দিয়ে মুছে ফেলি। 

Today I won’t say anything about my father, because I don’t want to cry. Long time back I told this to myself. I have cried enough, so I won’t cry anymore. I kept my promise, though sometimes my eyes can’t tolerate the pain, it brings out waters and I keep wipe up with my dress.

So, I don’t have any problem in my eyes


From many days facing problems for headache, now a day also thinking I am not viewing clearly. So, went to an eye specialist. I thought he will give many tests, glasses, many medicines etc. I was mentally prepared for that. But finally he gave me one vitamin tablet. After staying many times that I have terrible headache he gave another tab and told me to take 2 hours before sleep. I surprise, so I don’t have any problem in my eyes? Also thinking he might have gave me sleeping pill!!

মাথা ব্যাথা আমার জন্য নতুন কোন বিষয় না। তবে ইদানিং খুব বেড়ে গেছে। সেই সাথে মনে হচ্ছে চোখে ঠিক পরিস্কার দেখছিনা। তাই একজন চোখের ডক্টরের কাছে গেলাম। আমি ধরেই নিয়েছিলাম অন্যান্য ডাক্তারের মতো তিনিও আমাকে অনেক টেস্ট, অনেক ঔষধ, চশমা ইত্যাদি ধরিয়ে দিবেন। মানসিক প্রস্তুতি নিয়েই গেলাম, যাতে আতকে না উঠি। বাস্তবে ডাক্তার আমাকে ভিটামিন ট্যাবলেট দিয়ে বিদায় করে দিচ্ছিলেন। বার বার তাকে জানানো হলো যে আমার খুব মাথা ব্যাথাও আছে। ডাক্তার এরপর আরেকটা ঔষধ দিলেন ঘুমের ২ ঘন্টা আগে খাবার জন্য  ( আমার মনে সন্দেহ হচ্ছে এটা ঘুমের ঔষধ কিনা) । 
তবে একটা বিষয়ে নিশ্চিত হলাম, আমার চোখে সমস্য হয়তো তেমন নেই।

Saturday, June 15, 2013

ফিরে পেয়েছি আবার নেট কানেকশন


যত ব্যস্তই থাকিনা কেন, নেটের জন্য কিছুটা সময় বের করেই ফেলি। একটু ব্লগিং, একটু ফেসবুকিং, মেইল চেকিং, অনলাইনে টুকিটুকি ইনকাম..,
এই তো, আর সাড়া বিশ্বের পরিচিতদের সাথে মাঝে মাঝে আলাপ আর সবার খবর জানা, এমনকি দেশর খবরও। সাধারনত: খাওয়ার সময়, মানে যখন নিজে খাই আর যখন ছেলেকে খাওয়াই, তখন করি এই মাল্টিটাসকিং, মানের খাওয়ার সাথে নেট ব্রাউজিং। নইলে আর সময় কই। একারনেই কোন নির্দিষ্ট সময় নেই নেটে আসার। তারপরও নেটে সবার খবর রাখা যেন খুবই জরুরি, যেখানে অন্যে হয়তো খেয়ালই করেনা, আমি বেচে আছি না চলে গিয়েছি কোথাও।
তাতে কি, নিজের জগৎ তৈরি হয়ে গিয়েছে সকলকে নিয়ে।

একদিন নেট কানেকশন ছিল না। বারবার দেখেছি, নেট এসেছে কিনা, নাহ আসেনি। তাতে ক্ষতি আর কি হয়েছে, একটু বেশি সময় পেয়েছি অন্যান্য কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখতে। আবার নেট কানেকশন পেয়েছি, আবার আগের মতো হয়ে গিয়েছি, যেন কিছুই হয়নি, এমনই তো সব সময় চলছি।

Friday, June 14, 2013

There is always a way to find your happiness



If you want something, somehow you will know and find a way to get it. Kids know this better than the elder. Here you can see how my son got his bike. He made the pillow as bike, in road put some of his cars, create helmet by the spider man mask. All creativity is in his elder aunt (my elder sister Sharmin)’s room. He was just 2 years and 2 months old.

Thursday, June 13, 2013

Big trees beside the roads



Now a day we are making wide roads to solve our traffic problems. I will suggest adding one more thing. Please add big trees at both side of the road, if we have road divider then we can grow over there too. Here we better avoid fruit or good wood trees, because then people might have cut it down for their own benefit. It should be big tree which will give shadows on the road. Their fruits will be suitable for the birds and other creatures (like Debdaru or Cedrus deodara) only. The main reason of these trees is to give shadow to the passer by. And they will also help our eco system by helping birds and other creatures. It will give more green to our country.

Otherwise, when we pass the road, we really feel sick because of high temperature. Even, when you are in a vehicle you have to face this problem. If we can solve this problem with a natural way, we better try that.

Tuesday, June 11, 2013

বেশি নিড়িহ (বানান ঠিক হইলো কিনা বুঝিতেছি না)

Shafeen took his mom's picture

আমি বড়ই নিড়িহ নির্বিবাদী মানুষ। ইহা বুঝিতে কাহারও সময় লাগে না। অল্প সময়ের মধ্যেই সকলে বুঝিয়া ফেলে, এই কন্যা প্রতিশোধ নিবে না, কাহারো কাছে অভিযোগ করিবে না (এমন কি আল্লাহর কাছেও না), কাহারো কানে গিয়া লাগাইবে না। সুতরাং ইহার সহিত যেরূপ মন চাই সেরূপ ব্যবহার করা যায়। কোন রকম অসুবিধায় পরার সম্ভাবনা নেই।

আমার আম্মা প্রচন্ড রাগী একজন  মানুষ। যে কোন বিষয়ে রাগ হইলে, তিনি আমার উপর ঝারিতেন। আমি বিনা বাক্য ব্যয়ে মানিয়া লইতাম। মাঝে মাঝে আব্বা বিরক্ত হইয়া বলিতেন, যখন মার খাস, দৌড়াইয়া পলাইয়া যাস না কেন? কি করিয়া বলি, আমি পলাইলে আম্মার খারাপ লাগিবে।

বড় হইবার পরও পরিস্থিতি একই রকম রহিল। লোকে আমার কাজ নিজের বলিয়া নির্র্দিধায় চলিতে লাগিল, আমি কিছুই বলিলাম না। আমি অন্যের উপকার করিয়া যাইতে লাগিলাম, কখনও নিজের কথা ভাবিলাম না। ফলে যাহারা উপকার পাইল, তাহাদের কেহ কেহ যাইবার পুর্বে আমাকে ধাক্কা ফেলিয়া যাওয়াতে কোন রকম লজ্জা বোধ করিল না, আর আমিও কাহাকে কিছু বলিলাম না।

যে কাহাকেও ঠকায় না, বা ঠকাইতে পারেনা, সেও আমাকে ঠকাইয়া মজা পায়, আহা এমন বোকা সরল লোক আর পাওয়া যাইবে না, এই বেলা ঠকাইয়া সুবিধা লইয়া লই।

মানুষ শুধু না, এখন দেখি পশু-পাখি কীট-পতংগেরও ইহা জানা হইয়া গিয়াছে। চড়ুই পাখিকে হুস হুস বলিয়া ভয় দেখাইলেও উড়িয়া যায় না, জানে এই কন্যার কাহারও ক্ষতি করিবার ক্ষমতা নাই। কাক তো দেখিবা মাত্র নিশানা ঠিক করে, কিছু একটা মাথার উপর ফেলিবার জন্য। এখনও সুবিধা করিয়া উঠিতে পারে নাই।

গতকাল দেখিলাম, কয়েকটি নেংটি ইদুর ঘরের মধ্য ছুটাছুটি করিতেছে, আমি যে দাড়াইয়া আছি, তাহাতে তাহদের খোশ গল্পের কোন রকম অসুবিধা হইতেছে না। পিপড়াদের পায়ের স্যান্ডেলের শব্দ করিয়া ভয় দেখাইবার চেষ্টা করিয়াছি, কিন্তু তিল পরিমান ভয় পায় নাই। উল্টা পায়ে উঠিবার চেষ্টা করিয়াছে। বুঝিনা, নিরিহ মানুষকে সবাই হয়রান কেন করে, মনে রাখিও, জগতে নিরিহ মানুষ আছে বলিয়াই তোমরা এতো সুখে যাহা খুশি তাহা করিয়া বেড়াইতে পার।

Monday, June 10, 2013

Golden time, my son used to eat by himself.

Here Shafeen was 1 year and 11 months old. His uncle gift him this plate set.




When a baby comes in this world, they can’t do anything by themselves. Mother has to take all responsibilities for the kid and every moment she thinks, when her child will learn how to walk, then she will be little free, when her child will learn how to talk, then she will be little relief that the child can inform her about their problem. I am also like that. Now a day I think when my son will learn eating by himself, I will get some time to work something else. When he was 1 year and 11 months old he started eating by himself. Though it caused more trouble for me, he mass up his body and the surround area. But still I thought maybe I will get relief from one job. But I was wrong, my son somehow understood that mommy wants him to eat by himself, he stopped doing it. He is now 4 and half years old. And still I had to feed him. Otherwise he won’t eat.

Saturday, June 8, 2013

কেন এতো রাগাও আমাকে


আমি জানি, তুমি অসৎ নও
তারপরও তোমার উপর রাগ করি আমি

আমি জানি, তুমি কোন রকম ছলনা করছো না
কিন্তু কারো সাথে তোমাকে দেখলে
আমার খুব রাগ হয়

আমি জানি তুমি এমন কিছু করবে না যাতে আমার ক্ষতি হয়
তারপরও তোমার কাজ কখনও কখনও রাগ করায় আমায়

আমি জানি তুমি আমাকে ভালবাস
কিন্তু কখনও কখনও তোমার আচরনে রাগ হয় আমার

কিন্তু তুমিও এটা জানো
তোমার উপর রাগ করে বেশিক্ষন থাকতে পারিনা।

Why you make me so angry

I know, you are not dishonest
But still I got angry with you

I know you are not cheating
But when you are with anyone else
That makes me angry

I know you don't do anything that can be harmful for me
But your work sometimes makes me angry

I know you love me
But sometimes your attitudes make me angry

But you know also

I can't stay angry with you for long

Friday, June 7, 2013

অন্যের জন্য লেখা


আমরা অনলাইনে যা বলি বা লিখি, সবই হয়তো আরেকজনের জন্য। কেউ পড়বে, কি ভাববে, কি মন্তব্য করবে, এসবই লেখার সময় মাথায় রাখি বা মনের অজান্তেই চলে আসে। সমস্যা হলো, কখনোও কখনও এই বিষয়টাই মুখ্য হয়ে দাড়ায়। মানে আপনার লেখা আর আপনার থাকে না। এটা তখন, অন্যে কি পছন্দ করবে না করবে, তারপর ভিত্তি করে লেখা হয়ে যায়। এতে সাময়িক উপকার হলেও, মানে অনেকে পছন্দ করলেও শেষ পর্যন্ত আপনি আপনার স্বকীয়তা হারাবেন, আর সেই সাথে হারাবেন আপনার জনপ্রিয়তা। শুনেছি মাইকেল জ্যাকসনের জনপ্রিয়তা (তার জীবদ্দশায়) কমে যাওয়ার কারনও নাকি ছিল এই, পাবলিকের পছন্দ অনুসারে চলা।

Thursday, June 6, 2013

First tour in Airbus

Shafeen (my son) and I were in the queue to get inside the airplane.

Shafeen and I are looking for our sits inside the airbus

Shafeen was watching other airbuses through the window of the Jet Airways

Me and Shafeen in front of the airbus, the noise was very annoying to Shafeen.

I don’t remember the first air travel of my life.  It was from Bangladesh to Saudi Arabia. I was just 3 years old. Then we use to use local airbuses while traveling one area to another in Saudi Arabia and also used big jumbo airbus to come and go to Bangladesh in holidays. But I wasn’t old enough to look at the airbus name. But we became use to travel in airbuses. I can also remember the feeling when airbus take off and land and also when it fall in air pocket (off course not the first one). Later I have found some air ticket of Saudia Airlines, with my name.

When I became adult again get chance to ride on airplane inside Bangladesh. It was from Jossore to Dhaka. Then my experience was Malaysianairlines to go to Malaysia. Then Jet airlines to go to Kolkata.


Now this Kolkata tour became my son’s first airlines experience. His age was 1 year and 10 months, so there is no chance to remember anything. But I remember his moments. The first thing he found that it noises a lot. Then he watches other airbuses from the window. And finally see how the plane takes off. He got afraid, and start saying in low volume, “mom is here”, “mom is here”. But before the plane landed he fall in sleep.

Wednesday, June 5, 2013

These words are really good

mother son

I use to like cartoon, maybe I like them even now. But because my son, who watches it 24/7 it really became terrible situation for me. Now a day I don’t want to see any cartoon but had to hear its music and other sounds always. And I found that sometimes they are giving really good message to the audience. Though kids may not get it but they are really impressing. Like

“It's not about win or lose, it's the path you choose. Let the journey begin, Pokémon!”

We all have our journeys to make. (Rango)


Everything you need you have with you, you just have to believe in yourself, that you can do it (strawberry cup cake)

Tuesday, June 4, 2013

গরমের সাথে মানিয়েই অনুষ্ঠান করা উচিত


আমার মনে হয়, এই গরমে আমাদের বাইরে কোন অনুষ্ঠানের আয়োজন করাই উচিত না। এ্তো কষ্টের সব আয়োজন মানুষ ঠিক মতোন উপভোগ করতে পারেন না এই গরমের জন্য। বিশেষ করে শিশুরা কান্নাকাটি করে বড়দের আরো  বিপদে ফেলে।যে দেশে যে রকম আবহাওয়া, সেটা মেনে চলা ছাড়া উপায় নেই।  

Monday, June 3, 2013

Looking at sky



Looking at the sky, always gives you strength, piece and relax mood. Whenever you look at them, you will see a new beauty; that will cool your eyes again. It means you will see always something different, the light, the cloud, the color, and many things.


I have heard some prisoner had to stay in a dark small room. They could see nothing but a small window to sky. Then jail workmen found that the person getting strength from the sky only. Well they became cruel, the close that window too. What a punishment.

Sunday, June 2, 2013

Some tips

Me and Shafeen (my 4 years and 5 months old son)  at Bashundhara City Shopping  Complex

I have a tip for Dhaka Inhabitants. You should try to avoid Moghbazar to Bangla Motor road if possible, because Mouchak – Moghbazar flyover construction has started, and it blocked half of the road at the middle. Small space is free where only one row of car can pass. So to avoid terrible traffic jam we better find different way to move.


Here is a tip for the tea lovers. If you are at Bashundharacity shopping complex and you need to take tea then you can go the level 1 at the end of the row where Almas shop stands. They give tea per cup 10taka. Or you can go to the level 6 just opposite of the level1 food court. It is standing at the end of shoe shops. Their tea is also well. Or the easy way is to go the level 8 and find “Dhakya” food stall. They also provide tea.

Saturday, June 1, 2013

সত্য মিথ্যা


আমি মিথ্যা বলি না। তবে মাঝে মাঝে সত্য গোপন করতে হয়। নানা কারনেই এরকম করতে বাধ্য হই। সবাই সব সময় সত্য শুনতে পছন্দ করে না। আমি নিজেও না। মুখের উপর এতোটা কঠোর হওয়া যায় না। আমার সাথে কেউ এমন করলেও হয়তো আমি পছন্দ করবো না। যে ভাবে আমাকে আক্রমন করলে আমি পছন্দ করবো না, সেভাবে আমি অন্যকে কেন কষ্ট দিব। তবে মিথ্যা আশ্বাসের চেয়ে আমি সত্য শুনতেই বেশি পছন্দ করবো। কোন ভুল ধারনা নিয়ে আমি সুখি হতে চাইনা। তবে বেশি কষ্টের সত্য হলে আমি না জেনে থাকাটই পছন্দ করবো, এতো কষ্টও যে সহ্য হয় না।