Monday, March 30, 2015

Eyelid

Shafeen is my 6 years old son. He just came in an age when he started to discover the world. One day he asked me, “Mother, I can’t keep open my eyes for long time. Every now and then I had to close it. Otherwise it hurts.”

I replied, “It’s OK my son, it’s very natural. As a human we need to keep our eyes watery, so every now and then it automatically closes to avoid the dryness.”

Shafeen, “IC, that’s why fishes don’t have eyelid. They are in the water always, so they don’t need to do anything to keep their eyes wet…”

Saturday, March 28, 2015

সবাইকে না-ই বললে (You don't need to tell everybody)


[English version has given below]

ইউনিভার্সিটিতে আমার এক বন্ধু ছিল (এখনও আছে), কেন যেন আমার সব কিছুই ওর খুব ভালো লাগতো। এটা শুধু ওর মধ্যে থাকলে সমস্যা ছিলো না (মনে মনে যে খুব খুশি হতাম না তা কি করে বলি), কিন্তু ও ওর পরিচিত সবার কাছে আমার গল্প করে বেড়াতো। পরে ওর সেসব পরিচিত লোকের সামনে গেলে ওরা বলত, "এই সেই খুব ভালো, খুব বুদ্ধিমতি, খুব সুন্দরি!!!", তারপর বাঁকা হাসি। ওর কেমন লাগত ঐ জানে, আমার জন্য ব্যাপারটা ছিল খুবই অসস্তিকর, অসহ্যকর। 
ওকে অনেকবার শানটিং দিয়েছি, "আমার ভালো মন্দ দুরে থাক, আমার নামও তুমি কারো কাছে করবে না" । ও মাথা নেড়ে বলত, "আচ্ছা"। এতে আমি খুব একটা ভরষা পেতাম না, আমি জানি ও যখন কারো কথা এড়াতে চায়, বলে "আচ্ছা"।
পরের দিন টি এস সির সামনে একটা ছেলের সাথে দেখা হলো, ও পরিচয় করিয়ে দিল, ওর বন্ধু। ভালো কথা। ছেলেটা আমার কথা শুনেই বলল, "ও আপনি? আপনার কথা কালকে জেবা খুব বলছিল...."।
আমি ছেলেটার দিকে মুচকি হেসে, জেবার দিকে তাকালাম। ও তখন ঘাসের মধ্যে কি যেন খুজছে। ও বুঝতে পেরেছিল, এখন আমার দিকে তাকালে ভস্ম হয়ে যাবার একটা সম্ভাবনা আছে...


I had a friend in University (She still is), don't know why, she liked everything of me. She was a big fan of me. It wasn't a problem; if it's only stayed in her (Well I can't say I didn't like it). But she use to tell about me to everyone she knew. So, if I came in front of any person she knew, first impression of them are, "Oh, so this is your good girl, intelligent person, very beautiful?” And then laughed at me (Off course not with very good impression) I don't know what she felt about it, but I didn't like that at all. It’s really irritating, unacceptable...

I warned her many times, "You don't have to say any good or bad things about me". She shakes her head and said, "OK". I couldn't rely on her. I knew to get rid of any argument she use to say, OK.

One day, in front of TSC we met a boy. Zeba introduced him to me and he immediately recognize me, "Oh you? Yesterday Zeba said many things about you...."

I gave a nice smile to him and looked back Zeba. She was searching something on the grass, she knew if she looked at me now, must destroyed through my eyes...

Friday, March 27, 2015

মা ঘুমিয়ে থাকলে (When mom is sleeping)



[English version has given bellow]

ছোট বেলায় দুপুর বেলাটা ছিল পুরোপুরি আমার। কারন সবাই (বিশেষ করে আম্মা) ঘুমাতো। আমি একা একা সারা ঘর ঘুরে বেড়াতাম আর টুকটাক অকাজ করতাম। এই করতে গিয়ে কত কি  আবিস্কার করেছি। যেমন সব মসলার সাথে একটু চুন মিসালে রং পুরাপুরি লাল হয়ে যায়।  কিভাবে বের করলাম? একটা ছোট খেলনার বাটিতে সব রান্নার মসলা একটু একটু করে নিয়েছিলাম। সাথে একটু পানি ভালই রং হলো. এবার আব্বার পানের বাটি থেকে খানিকটা চুনও মেশালাম। দেখি রং পুরোপুরি লাল।  অনেক পরে বড় খালুর কাছে শুনেছিলাম, রেস্টুরেন্টে এভাবেই তরকারী রঙ্গিন বানায়।

আমার ছেলের মনে হয় এখন সেই বয়স এসেছে। দুপুরে ওর খাবার (একটা বাটিতে স্ট্রবেরি কেটে লবন আর চিনি দিয়ে মাখিয়ে, একটা বাটিতে ডিম ভেজে ইত্যাদি) টেবিলে রেখে একটু বিশ্রাম নিতে শুয়েছি। এর মধ্যে মহারাজ স্ট্রবেরি খেয়ে শেষ করে দেখলেন বাটিতে এর রস পরে আছে. তিনি সেটার মধ্যে পানি ঢেলে জুস বানানোর চেষ্টা করলেন। বলা বাহুল্য খেতে সুবিধার হয়নি। তাই এই জুস নিয়ে ভাজা ডিমের বাটিতে ঢেলে দিলেন। উদ্দেশ্য মহত। ডিমের স্বাদ বাড়ানো (এমনিতে ও ডিম খেতে পছন্দ করেনা)। পরে বিকালে উঠে আমি মহারাজের কীর্তি কলাপ দেখলাম। রাগ করতে পারলামনা, নিজের ছোট বেলার কথা মনে পরে গেল....

When I was a kid, noon was my own time, because all (especially my mom) usually slept at that time. And I had plenty of time to walk all over the house and do small experimental things. Because of these experiments I had found many things on those days. Like one day in a small bowl I took every kind masala and water. The color was deep brown. Then I added some "slaked lime" from my dad's Betel leaf pot. And the color of the whole thing just changed to deep red. I liked it.... After long time I heard from my elder uncle (maternal), in the restaurant people use this method to make red color of the curry....

My son now passing that time I guess. At noon I prepare his food (Cut strawberries and mixed it with salt and sugar, in another bowl kept fried egg) on the table and go to bed to take some rest. In the mean time my great man eaten the strawberries and found some juice left at the bottom the bowl. He put some water in it to make strawberry juice. You can guess it didn't test well. So he put that juice to the fried egg's bowl, to make the egg taste better (Actually he don't like egg). When I woke up I found these work. I wanted to show anger to him for his work, but couldn't... He just reminds me my childhood...

Wednesday, March 25, 2015

জি এফ (GF)



[English version has given below]

এখন যদি আপনি বিরক্ত হয়ে বলেন যে, সব আমার দৃষ্টিভংগীর কারনে দেখাচ্ছে, তথাস্তু। হতেই পারে। কিন্তু আমার যা মনে হয়েছে, তাই তো বলব?

You may feel irritated and say, "It's your way of looking..." Yes. Can be. But whatever I felt, I should say so, right?

বন্ধু বন্ধুকে জিগ্যেস করে, কিরে তোর জি এফ এর খবর কি? বন্ধু হয়তো একটু লজ্জা গলায় বলে, ভালই।

When one friend asks another friend, "How is your GF?" His friend blushes and reply, "Yeah good".

এখন যদি আমি কোন লিফটের সামনে দাড়িয়ে জি এফ লেখা দেখে প্রথমেই পড়ি "গার্ল ফ্রেইন্ড", তাতে আমার কি দোষ? তারপর মনে হয়, ওহ না, এটা হলো "গ্রাউন্ড ফ্লোর"!

Now when I go inside a elevator and see GF, in my mind I say "Girl Friend", then is it my problem? Then again thought, "Oh no, it means Ground Floor!"

বহুতল ভবনের উপর থেকে নীচে নামতে হলে আপনাকে এই জি এফ এর কাছেই যেতে হবে :)

When you have to came down from multistory building, you have to go to this GF :)

[২৬ শে আগস্ট, ২০০৬ ]

Tuesday, March 24, 2015

পশুর বর্জ্য থেকে দামী কফি! (Good quality Coffee bin from animal's wastage)



[English version has given below]

আমার ধারনা ছিল, আমরা কেবল মৌমাছির পেটের ভিতরের জিনিস (মধু) খাই. কিন্তু এখন দেখছি, নাহ আরো অনেক বিষয় আছে যা আমাদের অজানা...

পশু পাখির বর্জ্য সার আর বায়োগ্যাস তৈরিতে কাজে লাগে বলেই জানতাম, তবে ডিসকভারি চ্যানেলের বদৌলতে আরো অনেক উপকারের কথা জানতে পারলাম.

থাইল্যান্ডের বনে, আগে যেখানে আফিং (এক ধরনের নেশাকর দ্রব্য) চাষ হতো, এখন সেখানে উন্নত মানের কফি বিনের চাষ হয়. আবহাওয়া নাকি ম্যাচ করে (এটা তাহলে আমাদের দেশেও সম্ভব). তবে এখানকার সবচেয়ে দামী কফি উত্পন্ন করে এক ধরনের পশু (সিভেট). এরা কফি বিন খায় এবং বাগানে মল ত্যাগ করে. চাষীরা কাগজ পেতে তাদের কৃতিম মল ত্যাগের জায়গা বানিয়ে দিয়েছে. এক জায়গায় বার বার বর্জ্য ত্যাগ করার ফলে সেখানে বেশ পরিমানে কফি বিন জমা হয়. চাষী এটা হাত দিয়ে ধরেনা. কাঠি দিয়ে তুলে কারখানায় নিয়ে আসে. এরপর একে ১০ বার ধোয়া হয় হাতে, বর্জ্য এবং কফি বিন আলাদা করার জন্য. এই কাজ সহজে কেউ করতে চায়না. কারন প্রথমবার নাকি বেশ বাজে গন্ধ বের হয়. এরপর এক সপ্তাহ রোদে শুকানো হয়. শুকনা বিন মেশিনে গরম করে ভাজা হয়. তারপর সেখান থেকে বের হয় দারুন কফির সুগন্ধ. যার মূল্য অনেক বেশি. এরপর টিন এ ভরে মূলত: আমেরিকায় রফতানি করা হয়.

কবুতরের বর্জয়াও নাকি অনেক উপকারী, চামড়া প্রক্রিয়ার জন্য. এতে চামড়া মসৃন আর টেকসই হয়....

এজন্য ই আমি খাবার খাওয়ার সময় ডিসকভারি চ্যানেল দেখিনা... হঠাত এমন সব বিষয় দেখায় যে খাওয়া মুশকিল হয়ে যায়.

I thought we only eat food from only one insect's stomach (Honey from bee). But recently I found there are really much in real life. I thought birds and animal's wastage only use for fertilizer or bio-gash. But my knowledge has increased because of Discovery Channel.

In Thailand's jungle where people use to produce opium, now they started producing good quality Coffee bin (May be this is possible in Bangladesh too, same weather), because weather matches. But the most valuable (costly) Coffee bin produced by an animal (Civet). It eats coffee bin at night and left it's wastage in the garden. Farmers made man made toilet with paper for them. They usually left their wastage over there. Later farmers collect it with wooden stick and take it to the production house, where they wash it for 10 times in hand. Well actually nobody wants to do this job because it stings really hard when someone wash it for first time to separate wastage from Coffee bin. Then they dry it in the sun for 1 week. Then again dry it in the machine, kind of frying. Then the real smell comes from the coffee bin. Farmers pack it in Tin and mainly sold it to US.

Pigeon's wastage is also very important to process in leather factory. It helps to make leather smooth and strong.

You know what, this is why I don't watch Discovery channel while taking food.... Suddenly it shows such program that I had to stop eating...

Monday, March 23, 2015

আচরন, ভোলা যায়? (Attitude, can you forgive that?)



[English version has given below]

আমার এক বস ছিলেন, ছোট খাট কারনে প্রচন্ড রেগে যেতেন। কিন্তু এর থেকে বের হবার ম্যাজিক শব্দও ছিল "সরি", এটা বললেই হলো সব রাগ পানি।

I had a Boss, who uses to become very angry in very small issues. But there was a magic word to solve this problem, "Sorry". No matter what happens, if anyone says "Sorry" to him, he forgets all.

কালকে জীমে গিয়ে মনে হলো, এই যাহ, কার্ড আনতে ভুলে গেছি। ঢুকতেই রেসপন্সিবল পার্সনকে বললাম, সরি কার্ড আনতে ভুলে গেছি, পরে আনব। উনি উত্তর দিলেন, তাহলে পরেই আইসেন। ওনার কথায় পাত্তা না দিয়ে ঢুকে গেলাম, কিন্তু ব্যাপারটা এতো স হজে হজম হলোনা। ভাবছিলাম, কালকেই নতুন জীমে খোজ নিব। এই মাস এখানে থেকে, ঈদের পর নতুন জীমে/এরোবিক্সে জয়েন করবো।

Yesterday I went to the gym and found, I forget to bring my id card. I went to the responsible person and said, "Sorry, I forgot to bring my ID card. I will bring it tomorrow." He replied, "Then come to the gym tomorrow." I didn't care what he said, just went into the gym. But I couldn't get out this from my mind. So, decided, tomorrow I will look for another gym and from next month I will join in that new place.

বের হবার সময় উনি আমাকে বললেন, দাড়ান এক সাথে নামি (সাধারনত: 6তলা থেকে মেয়েরা একা সিঁড়ি দিয়ে নামেনা)। নামতে নামতে হালকা কথা হলো, আমার বোনের কথা জিগ্যেস করলেন ইত্যাদি ইত্যাদি। বেশ হাসিমুখে। তারপর নীচে বিদায় নিয়ে চলে গেলেন, আমি আবার ভাবতে শুরু করলাম, যাই হোক এতো খারাপও তো না, বাসার কাছে আর জীম কোথায় পাব, গেলে তো অনেক দূরে যেতে হবে, আবার রাতে একা একা ফিরাও সমস্যা...। বুঝলাম রাগ চলে গেছে...

When I was returning home, he looked at me and said, "Please wait, let's go down stairs together." Actually here from 5th floor girls generally don't go down alone.  While we were stepping down he started light conversions like asked about my younger sister (she also joined this gym) etc. He was smiling a lot. When we come down, he said good-bye to me and went away. I started thinking again; actually this place isn't too bad. Its near my home how can I found a place like that. If I look for another gym I had to accept a long route. That will be difficult for me to go back home alone in night etc.

Actually what I found is my anger has gone...

[২৩ শে আগস্ট, ২০০৬]

Saturday, March 21, 2015

আপনার মনে হবে আপনি সব ক্ষেত্রেই ব্যর্থ (you may feel you have failed in every sector)


[English version has given below]

জীবনের একেকটা সময় এমন আসে যে আপনার মনে হবে আপনি সব ক্ষেত্রেই ব্যর্থ। কাজে, আনন্দে, জীবনের ছোট বড় লক্ষ্য পূরণে, এক কথায় প্রতিটি বিষয়ে। আমার মনে হয় সেই সময় পার হচ্ছে। এখন মনে হয় ভাগ্যও কোন রকম সহায়তা করছেনা। যা এমনিতেই পাবার কথা সেটা হাজার চেষ্টা করেও হচ্ছেনা। মাঝে মাঝে মনে হয় ছেলেটাকেও হয়তো ঠিক মতো মানুষ করতে পারছিনা। আমার জায়গায় আর কেও হলে হয়তো ও আরো ভাল থাকত। ওর পড়াশুনা, স্বাস্থ্য আরো ভাল হতো. আমি আমার নিজের কাছেও আর ভাল না। 

নাহ আমি হতাশাবাদী নই। তবে, বাস্তব অবস্থা  বোঝার চেষ্টা করি।

শুন্য থেকে সব শুরু করতে হবে...  বার বার এতো খারাপ অবস্থায় পরে যাই বলেই, বার বার জীবনের লক্ষ্য থেকে আমাকে সরে দাড়াতে হয়। সাময়িক সমাধানের জন্য। আর যেখানে মনোযোগ দিয়ে লেগে থাকার কথা... সেটা আর করাই হয়না। আর একারনেই সব সময়ই পিছিয়ে থাকি, কিছুতেই আর মজবুত অবস্থানে যেতে পারিনা।

হয়তো এভাবেই চলতে থাকবে। সমুদ্রের পাড়ে বালির প্রাসাদ বানাবো আর রোজই সমুদ্র সেটা ভেঙ্গে দিবে।  আমি বিপুল উত্সাহে আবার নতুন করে বানাবো। বেশতো, চলতে থাকুক এভাবেই... এর থেকে আর মুক্তি নেই...

In life in some points you may feel you have failed in every sector, in your work, happiness, in small or big goals... in one word in every matter of your life. May be I am passing those moments now. Sometimes I think even my fortune isn't with me. Things which I should have without any doubt are not coming to me after trying thousand times. Now I am thinking maybe I have failed in raising my son too. If any other person was here, may be done well in his health and education. I am not good not even in my own eyes.

Nope... I didn't lose my hope. I am just realizing the true situation of my life.

I have to start everything from zero. You know I always fall in these situations that I can't keep going with my goal. Always I had to find a short time solution. So, that I couldn't stand on my main tract and keep working with it with patient. May be that's why I couldn't grow the way I wanted or should become. Still I couldn't take me in a good position.

May be this is my life. I will always build a castle on the beach and every day the ocean's wave will break it. Next day again I will build another one.... I don't have any other option.... 

Friday, March 20, 2015

ক্যানডি, বিপদে আপনজন (Candy, sometimes play very important role)


[English version has given below]

অফিসে যখন সপ্তাহে একদিন ছুটি থাকলে যা হয়, সব কাজ ঐ একদিনে শেষ করতে হয়। আজ বাসা থেকে বের হয়েছি সকাল ১১ টায়, ফিরলাম সন্ধ্যা ৭ টায়। ৩ জায়গায় গেলাম, এক জায়গায় শুধু লাল চা খাওয়ালো। মনে মনে খুব ঠান্ডা পানি আশা করেছিলাম, দেয় নি (নাস্তা তো পরের কথা)। ছুটাছুটি করার সময় বেশ কয়েকবার মনে হয়েছে, কোনো খাবারের দোকানে ঢুকে খেয়ে নেই, আবার ভাবলাম, এতে দেরি হয়ে যাবে। ঠিকই ভেবেছি, আসলেই দেরি হয়ে যেত।
বাসা থেকে বের হবার সময়, কয়েকটা প্রান ম্যাংগো ক্যানডি নিয়েছিলাম (এই ক্যানডি ঘরে রাখার পিছনে ছোট ইতিহাস আছে, পরে জানাব) ভেবেছিলাম রাস্তায় ইচ্ছা হলে খাব।
শেষ পর্যন্ত সেটাই কাজে আসল, সাড়া দিন, ৫ টা ক্যানডি খেয়ে দিন কাটিয়ে দিলাম। খেয়েছি বাসে, রিক্সায় আর সি.এন.জি. তে বসে। বেশ ভালই, খেলে ক্ষুধা চলে যায়।


When you have only one day off in the week end, you have to complete all of your work in one day. Today I went out from home at 11 am and returned 7 pm. I went at 3 places; in only one place they offered me black tea. I was expecting some cold water too, but they didn't (So you can't think about snacks). Whole I had run one place from another... I thought many times I should go to any restaurant and have some food. Then again thought that will make me late. And I was right.

When I went out from home I took some Pran Mango Candy (This candy has another story... will tell you later). I thought I will take them if I felt so. And finally they help me to work whole day. I took total 5 candies. I took them in the bus, rickshaw and CNG auto rickshaw. They were good to reduce my hunger....

Wednesday, March 18, 2015

পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সিডিউল সমস্যা (Schedule problem at Popular Diagnostic Center)


[English version has given below]

আম্মা, বেশ অসুস্থ্য বোধ করছেন। আমার বোন (ডাক্তার) বেশ টেস্ট করার জন্য লিখে দিয়েছে। আমি আম্মাকে নিয়ে গেলাম পপুলার ডায়াগনস্টিক (শান্তি নগর) এ. ডায়াবেটিকস এর জন্য  রক্তের পরীক্ষা আধা ঘন্টার মধ্যে হয়ে গেল. ইকো করার সময় দিল দুপুর ২ টায়, তখন ১২টা বাজে. আম্মা বার বার রিক্সার ঝাকুনি সহ্য করতে পারেননা. তাই বললেন ২ ঘন্টা এখানেই কোথাও খেয়ে, নামাজ পরে কাটিয়ে দিবেন.

My mom is feeling very sick. My sister (doctor) had written some tests for checkup. I went to Popular Diagnostic Center (ShantiNagar) with mom for those tests. We had to wait 30 minutes only for diabetic blood test. Then they told us Echo test will be held at 2 pm. They informed us about it at 12 pm. My mom's condition isn't good enough to tolerate jerking at Rickshaw for 2 times more, so she decided to wait (not to go home). She said we will take food and say prayer and wait here.

১২.৩০ এ আম্মাকে বলল, ডাক্তার ব্যস্ত, কাজে আটকে গেছেন অন্য ডাক্তার ইকো করবেন ৩.৩০ এ. আম্মা মেনে নিলেন.

AT 12.30 pm they again told us, the doctor who should take Echo test became busy so can't came. Another doctor will take that test at 3.30 pm. I mom again decide to wait.

৩ টার সময় জানালো ২ টা তো নয়ই, ৩.৩০ এও ডাক্তার আসার কোনো সম্ভাবনা নেই. কে দিয়েছে এই সময়? ডাক্তার আসবেন ৪.৩০ এ. এর মধ্যে আরো রোগী এলো. বলল ওদের সাথেও এমন করেছে. প্রথমে ২ টা বলে এরপর ৩.৩০ এ সময় দিয়েছে, ওরা জানত এদের সিদিউলের ঠিক নেই তাই আধা ঘন্টা দেরী করে এসেছে... এরপরও আরো আধা ঘন্টা অপেক্ষা করতে বলা হচ্ছে....

At 3 pm they informed us who told us that test can be taken at 2pm? Not even 3.30 pm. Test can be done at 4.30 pm. By this time more patients came and they told the same story... One said she knew these people don't maintain schedule so she came late.... but still she had to wait 30 minutes more.

শেষ পর্যন্ত ইকো করাতে ডাক্তার এলো ৪.৪৫ এ. একজন রুগীর পর আম্মার পালা এলো...

Finally doctor came at 4.45 pm. And after one patient my mom gave the test.

পপুলার ডায়াগনস্টিক যথেস্ট দায়িত্ববান বলেই জানতাম.... সামান্য সিডিউল নিয়ে এমন কেন করলো সেটা বুঝলাম না. এদিকে ১১ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত এভাবে শুধু টেস্ট করতে রুগী নিয়ে বসে থেকে আমাদের অবস্থা কি হয়েছিল বুঝতেই পারছেন....

I thought Popular Diagnostic Center was responsible enough. But what they did about these schedule isn't acceptable. You can understand what condition might happen with my mom and me by waiting from 11 am to 5 pm....

Tuesday, March 17, 2015

ন্যাড়া মাথা (Bald head)


[English version has given below]

আমি যখন ছোট ছিলাম তখন অভিভাবকদের মধ্যে একটা কমন ধারনা ছিল (হয়তো এখনও আছে), বাচ্চাদের বার বার চুল কাটলে চুল ঘন হয়ে বড় হয়। ফলাফল সব সময়ই বন্ধুদের কারো না কারো বেল মাথায় পট্টি বেঁধে ঘুরতে দেখতাম (এবং নিজেও ঐ অবস্থায় পড়তাম)। আমার বয়স যখন ৩/৩.৫ (মনে নেই শোনা কথা) তখন আম্মা প্রায়ই মাথা কামিয়ে দিতেন। ব্যাপারটা এতো সহজ ছিলোনা, আমি খুব চঞ্চল মেয়ে ছিলাম (এখন আত্মীয়রা অবাক হয়ে বলে, এই মেয়ে এতো ঠান্ডা হলো কি করে?)। শুতরাং জেগে থাকতে মাথায় ব্লেড চালানো অসম্ভব, তাই ঘুমালে আম্মা তার অপারেশন বেল শুরু করতেন। দেখা যেত প্রায়ই পুরো মাথা খালি করার আগেই আমার ঘুম ভেংগে যেত। আমি ঐ অর্ধেক কামানো মাথা নিয়েই পাড়া ঘুরে বেড়াচ্ছি (কারো হাসাহাসি নিয়ে আমার মাথা ব্যাথা ছিলোনা তখন, এখনও নেই)। পরে আবার ঘুমালে আম্মা আবার শুরু করতেন, এভাবে একটু একটু করে পুরো মাথা খালি করতেন। :)


When I was a kid, our elders thoughts (May be this tradition still going on in some families) if you clear (hair cut/bald) your kids head frequently in childhood then your kid's hair will grow with more density. So, we use to see our friends with bald head and scarf frequently. And they had seen mine too. I don't remember these situation because I was only 3 or 3.5 years old. I heard these from elders, that it wasn't an easy task for my mom. Because I was very brisk (Even now my relatives became surprise how this girl became so quite). So my mom has to clear my hair when I fall in sleep. Many times before she completed my head, I woke up. Then I use to play and travel in my area with awkward head (Part of my head was hairless). I didn't care why people laughing at me. Again when I fall in sleep my mom could complete her job :)

Sunday, March 15, 2015

অন্যের ফাই ফরমাস খেটেই জীবন কাটিয়ে দেয় (Spending life by helping in other's job)

[English version has given below]

সব মানুষেরই জীবনে একটা লক্ষ্য থাকে। কারো কারো অনেক বড়, কারো কারো খুব ছোট. আপনি ভাবছেন সবাই নিজের ভবিষ্যত  নিয়ে ভাববে, এটাই তো স্বাভাবিক। হ্যা স্বাভাবিক, তবে এই ভাবনা যে কত বিচিত্র হতে পারে, তা কল্পনাও করা যায়না। অনেকে নিজের ক্ষমতার উপর নির্ভর করে কি কি জীবনে পাওয়া সম্ভব তার পরিকল্পনা করে. আবার কেউ কেউ ভাবে, বা না ভেবেই অন্যের ফাই ফরমাস খেটেই জীবন কাটিয়ে দেয়। ভাবছেন এও সম্ভব? নিজের জন্য কিছু করবেনা? নাহ.... যাদের ফাই ফরমাস খেটে জীবন কাটাবে, তারা হয়তো কখনো না খাইয়ে রাখবে না এই বিশ্বাস নিয়েই বাকি জীবনের ভাবনা শেষ করে দেয়.

দুনিয়াতে এদের দরকার আছে. না হলে ফাই ফরমাস খাটবে কে? যারা খাটায় এবং যে খাটে দুপক্ষই খুশি।

Every people on this earth has a goal. Some has big, some make small. You are thinking it's very natural that people will have goal. Yes it's natural. But you can never imagine how peculiar these goal can be. Some depend on their strength to set and achieve goal. But some thinks or without thinking they made goal to spend life by doing other's odd job. Is that possible? Won't they think any achievement for themselves? NO... they spend their life by helping (Slaving) in other's life and thought that the people who are taking their help won't keep them hungry.

Well, the world need these people, other wise who will work  or helping in other's work without any credit? Both who works and who make the works are happy here.

Saturday, March 14, 2015

গ্লাসে পানি খেলে কি আর থুথু লাগে না? (When we drink water on glass, doesn't it touch our saliva?)



[English version has given below]

তামিমের (আমার বড় বোনের ছেলে, বয়স তখন 4 বছর ছিল) খেতে গিয়ে খুব ঝাল লেগেছে। আমি বেডরুমে প্লেটে করে খাওয়াচ্ছিলাম। বললাম, যাও দৌড়ে, ডাইনিং রুমে গিয়ে পানি খেয়ে আসো।

এক দৌড়ে গেল, একটু পরেই চলে আসলো। একটু অবাক হলাম। এতো তাড়াতাড়ি?
একটু পর শেখা (আমার সবচেয়ে ছোট বোন) আসলো গজরা গজরাতে, আমাকে নালিশ দিলো, তামিম জগ থেকে সরাসরি পানি খেয়েছে।

গম্ভীর হয়ে ওর দিকে তাকালাম, বললাম, জগে পানি খাবে না, গ্লাসে ঢেলে খাবে। ও বলল, আমার গ্লাস তো পাই নি। আমি বললাম, না পেলে যার গ্লাস সামনে পাবে, তারটাতেই খাবে।

ও বলল, "গ্লাসে করে পানি খেলে কি গ্লাসের গায়ে থুতু লাগে না?( মানে অন্যের গ্লাসে পানি খেলে কি আর সেখানে অর থুথু লাগবে না? শুধু জগের গায়েই লাগে?) "

বুঝলাম, যুক্তিতে ওর সাথে পারবোনা, তাই চিরাচরিত মুরুবি্বর মতোন বললাম,
"আমি এতো কথা শুনতে চাইনা, সব কিছুরই একটা নিয়ম আছে। জগে পানি খাওয়া চলবে না, আমি যেন আর না দেখি এরকম করতে..." 

Tameem (My elder sister's son, was 4 years old on those days) found the meal is too hot. I was feeding him at bedroom, so I told him to run towards dining room and take water. He run and came back within very short time. I was thinking.... too fast? After some time my youngest sister Shekha came in anger and told me Tameem drunk water from the jug, directly (didn't use any glass).

I give him a look, and told him, never drink water from jug. Always use glass. He said I couldn't find my one. I replied, and then take any other person's glass, but jug.

Then he replied, when I drink water on other’s glass won't my saliva touched that? Or it happens only with jugs?

I understand I won't find any logic behind this... so like other elders I told him, "Don't ask too many questions, when I said not to drink from jug, then that are the final."

Friday, March 13, 2015

"হেড মিস্ট্রেস তোমাদের কি আচার খাওয়ার জন্য টাকা দিয়েছেন?" (so you think head mistress gave you money to buy pickles)

[English version has given below]
আমাদের সময় স্কুলের হেড মিস্ট্রেস ছিলেন সাহেদরা বেগম। খুবই কড়া মহিলা। আমরা সাংঘাতিক ভয় পেতাম। যখন আমরা দশম শ্রেণীতে, তখন ওনার রিটায়ারের সময় হয়ে গেল. একারনেই হয়তো আগের মত আর রাগ দেখাতেন না. আর এতে আমাদেরও সাহস বেড়ে গেল. যেমন একদিন কি কারনে যেন আমাদের কয়েকজন বান্ধবী ছুটির পরও স্কুলে ছিলাম। ছোটাছুটি করে বেশ খিদেও পেয়েছিল। আমি বললাম, চলো, হেড মিস্ট্রেস ম্যাডামকে বলি, উনি কোন ব্যবস্থা করবেন। কেউ রাজি হলোনা। অগত্যা আমি আমি একাই ওনার ঘরে গেলাম।

ম্যাডামকে বললাম, ক্ষুধা লেগেছে, কিছু টাকা দিবেন, খাবার টাবার কিছু কিনে খাই. উনি একটু হেসে দিয়ে দিলেন. যেহেতু আমি একাই গিয়েছিলাম, তাই টাকার পরিমান এত বেশী ছিলনা যে সবাই বেশি কিছু কিনতে পারব। স্কুলের সামনে থেকে আচার কিনে সবাই খেতে লাগলাম।

ইতিমধ্যে স্কুলের ম্যাডামদের ছুটি হয়েছে. ম্যাডামরা সবাই এক সাথে বের হয়ে দেখেন আমরা কয়েকজন টিলার উপর (বর্তমানে হেড মিস্ট্রেস এর বাস ভবন) বসে আচার খাচ্ছি। এক ম্যাডাম রেগে বললেন, এই দুপুরে বসে বসে আচার চাচ্ছ? আমি বললাম, "হেড মিস্ট্রেস আমাদের টাকা দিয়েছেন খাওয়ার জন্য". আমার কথা শুনে সব ম্যাডাম হেসে ফেললেন। বললেন, "হেড মিস্ট্রেস তোমাদের কি আচার খাওয়ার জন্য টাকা দিয়েছেন?"

When I was in school, our head mistress was Sahedora Begom. She was very strict and we use to afraid of her very much. When we were at class 10, our madam became little calm. That was her last year before retirement. May be that's the reason she raised her tolerance power. And obviously our fear became less. Like one day, for some reason some girls including me had to stay in school after class. We played a lot so soon became very hungry.

I had an idea. I told my class mates that lets ask our head mistress for money. Nobody agree. So, I went alone to her room and told her, we are very hungry, can she help us? She smiled and gives me some money. As I was alone so that money wasn't enough for all of us. So, we bought some pickles (available in front of our school) and sit on the small hill (now our head mistress house) and start enjoying it. We were very happy. Soon all teachers came out to go home and saw us having pickles at the mid noon. They became really angry, asked why you are taking pickles this time. I replied, our head mistress gave us money. Because of my answer all start laughing, and said, so you think head mistress gave you money to buy pickles (not good lunch) at this noon?

Sunday, March 8, 2015

আমড়া ধুয়ে নে... (Wash the hogplum first)


 [English version has given below]

আমার ঘর ৩ তলায়, আর বাকি সবাই থাকে দোতলায়। একদিন নিচে নামার সাথে সাথে ছোট বোন বলল আব্বা আমড়া এনেছে, খাও। একবারে খোসা ছাড়িয়ে, কেটে রেডি করে এনেছেন। শেখা বলল, তবুও তুমি একবার ধুয়ে নাও।

ধোয়ার জন্য মাত্র হাতে নিয়েছি, আম্মা অন্য ঘর থেকে চিৎকার করে বললেন, এই আমড়া ধুয়ে নে ফুটানো পানি দিয়ে, ময়লা পানি দিয়ে ওরা ধোয় না কি করে।

যাই হোক জগ থেকে ফুটানো পানি দিয়ে ধুয়ে নিলাম।

মনে মনে ভাবছি, এদেশে রাস্তায় কত ধুলা বালি সহ খাই, ময়লা হাতে, রাস্তার ধুলা সাথে গাড়ির ধোয়া আর কত কি, তখন কোন খবর থাকে না কি খাচ্ছি। বাসায় আসলেই যত সূচিবায়ু রোগ শুরু হয়...

[১৪ ই আগস্ট, ২০০৬]

At home, my room is at 2nd floor and other family member lives at 1st floor. One day when I came down from 2nd floor my youngest sister said, "Dad brought some Hogplum, you can eat them. He made it ready to eat from the seller at the road. So, wash it first". To wash hogplum I just took one and my mom screamed from other room, "Wash it with boiled water, it's from road. Who knows whether they wash it or not or washed it with dirty water..."

Anyway I washed it with boiled water taking it from jug.

I was thinking. In our country, all clean food can have only at home. Outside we take food with unwashed hand, dust from the road and many for thing (Who knows). We only care what we eat at home...

Saturday, March 7, 2015

কোরিয়ান রোমান্টিক মুভি, ভাল লেগেছে (I liked Korean romantic movie)


কোরিয়ান রোমান্টিক কমেডি মুভির অনেক সুনাম শুনেছি। গতকাল সারারাত জেগে কিছু দেখেও ফেললাম। ছবির সব কিছুই যে ভাল লেগেছে তা নয়, তবে সবমিলিয়ে ভালই লেগেছে. খুব বেশি মাথা খাটাতে হয়না. হালকা সুন্দর মিষ্টি প্রেম। তবে বড় গভীর। ভালবাসা আসলেই খুব সুন্দর। আমরাই একে বিকৃত করি, নস্ট করি.

ভালবাসা থাকলে রাস্তায় থেকেও বেহেস্তে থাকার সুখ পাওয়া যায় আর না থাকার কষ্টে তাহমহল এ থেকেও মনে হবে দোজখে আছি. তবে সুখের কথা হলো এটা বোঝার অনুভূতি সবার থাকে না.

I heard about Korean Romantic Comedy Movies, they are very good. Last night I didn't sleep at all and watched some Korean Romantic Movies. I won't say, I liked everything of those movies, but overall I liked them. You don't have to use your brain much to understand them. They are light, nice and sweet love with depth. Love is really very beautiful, we make it nasty and destroy it.

When you have love you can feel heaven if even you are living on the street. But when you miss it, you might feel hell even you are living at TajMahal. But good news it, all doesn't feel it.

Friday, March 6, 2015

এই, সব বান্দরের বাচ্চারা! (Hei, kids from monkeys!)


[English version has given below]

আমি যখন ক্লাস ফাইভে পড়ি, আমাদের  নতুন হেডমিস্ট্রেস (সাহেদরা বেগম) জয়েন করলেন, প্রচন্ড বদ মেজাজী। আমরা খুব ভয় পেতাম তাকে।

এরপর ৫ বছর পর, ক্লাস টেন এ, আমরা বিদায়ী ছাত্রীরা একটা পিকনিক গেলাম (ট্র্যাডিশন)। সেটা ছিল হেডমিস্ট্রেসের রিটায়ার্ডের বছর। উনি তখন বেশ চুপচাপ ছিলেন (আমরা এভাবে ওনাকে দেখতে অভ্যস্ত নই)। খাওয়া দাওয়ার পর শুরু হলো খেলা। একটা বক্সে অনেক গুলো কাগজের টুকরো রাখা হলো। একজন একজন করে একটা তুলছিল, যার ভাগ্যে যেটা আসে, সে সেটাই করে দেখায়।

এক কন্যার উঠলো, "কাউকে নকল করে দেখাও"। কন্যা হঠাৎ ভয়ানক স্বরে চেঁচিয়ে উঠলো, "এই, সব বান্দরের বাচ্চারা, মানুষের বাচ্চা হও, মানুষ হও"। সবাই হো হো করে হেসে উঠলো, হেডমিস্ট্রেস অতি কষ্টে একটু হাসলেন, কারন ঔ মেয়ে অবিকল তাকে নকল করেছিলো। 


I was studying in class 5; a new headmistress (Sahedora Begom) joined our school. She was very strong and rude with us. We all had big fear about her.

After 5 years I was in class 10. We all girls went out for picnic from school (Tradition). That was our head madam’s last year before retirement. She was little calm (We never saw her like that). After lunch our madams started a new game. There was a box with little slips. Every girl go and pick one note and do whatever written there. One girl got note “Copy any person’s attitude”. She suddenly started screaming, “Hey kids of moneys… try to be human”… all students and madams burst out laughing. Because she just copied our head mistress. Our head madam also laughed a bit… (Didn’t look so happy)

Thursday, March 5, 2015

জাপানিজ রোস্ট বিফ, থুক্কু বাঙালী টক মিষ্টি খাসির গোস্ত (Japanese beef roast, actually Bangladeshi sweet and sour mutton curry)



[English version has given below]

আমি সব সময়ই রেসিপি দেখে নতুন নতুন ভাবে রান্না করি. আমার তো আর নিজস্ব শেফ নেই. কে নতুন নতুন ভাবে রান্না করে খাওয়াবে (যেখানে রেধে খাওয়ানরই কেউ নেই). রান্না করতে আমার খারাপ লাগেনা। তবে মাঝে মাঝে রান্না না করে থাকতেও ইচ্ছা করে.

I always try to cook new items by follow recipe. You know, I don’t have any personal chef, so I had to cook by myself. I don’t hate cooking. But sometimes I wish if someone sometimes cook for me.

আমি রেসিপি দেখে (যা আমার কালেকশনে আছে) একটার পর একটা রান্না করার চেষ্টা করি. আর সব বিফ খাবারকেই ধরে নেই, মাটন (গরুতে এলার্জি আছে আমার). এবার পেলাম জাপানিজ রোস্ট মাটন (আসলে বিফ ছিল). এখানে মাটন প্রথমে রসুন, সয়াসস আর চিনি দিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে. এরপর পরিবেশনের সময় পেয়াজ পাতা, আদা বাটা আর রসুন কুচি দিয়ে পরিবেশন করতে হবে.

I follow recipe from my collection and cook food one after another. This time I found a recipe on Japanese mutton roast (Actually beef roast, I have allergy on beef so had to turn all beef items to mutton). According to recipe mutton has to be boiled with garlic, soya sauce and sugar. Then while serve we have to add onion leaf, grinned ginger and sliced garlic.

আমি বুঝলাম, খাবার সময় কাচা আদা, রসুন বাঙালীর মুখে ভাল লাগবে না. তাই এর বাংলা ভার্সন বের করলাম. তবে জেনে কি কি লাগবে মাটন রোস্ট বানাতে...

I understood, Bangladeshi people won’t like to take mutton with raw garlic and ginger. So, I have to change the recipe a bit. Here is my version of mutton sweet and sour curry.

What you need:

১. খাসির গোস্ত (৬৭৫ গ্রা:)
২. ৩টি রসুনের কোয়া কুচি
৩. সয়াসস (১০০ এম এল)
৪. তেল (১০০ এম এল)
৫. চিনি (১.৫ চা চামচ)
৬. ৩ সেমি টুকরো আদা বাটা.
৭. পিয়াজ কুচি (২ চা চামচ)

1. Mutton (675 g)
2. 3 cloves of garlic zillion cut
3. Soya sauce (100 ml)
4. Cooking oil (100 ml)
5. Sugar (1.5 tea spoon)
6. 3 sm ginger massed

কিভাবে রান্না করবেন:

১. প্রেসার কুকারে খাসির গোস্ত, একটি রসুনের কোয়া কুচি, সয়াসস আর চিনি দিয়ে ঢেকে জোর আঁচে চুলায় বসান.
২. একবার সিটি বাজলে আঁচ কমিয়ে দিন. এভাবে ১০ মিনিট রান্না করুন.
৩. এরপর চুলা থেকে নামিয়ে, ভাপ বের করে ঢাকনা খুলুন.
৪. ঢাকনা খোলা অবস্থায় আবার চুলায় বসান, এবার জোর আঁচে.
৫. এখন গোসতে একে একে বাকি রসুন কুচি, তেল, আদা আর পিয়াজ দিয়ে ভুনতে থাকুন.
৬. মাংস যথেস্ট নরম হয়ে গেলে বুঝবেন রান্না হয়ে গেছে.

খেতে খানিকটা টক মিষ্টি.

How to cook:
1. Take mutton, one clove of garlic zillion cut, Soya sauce and sugar into the pressure cooker and put it on gas burner with full flame.
2. When you hear the whistle turn the flame in low hit and let it cook like that for 10 minutes.
3. Then take off the cooker from the hit and let all air go out and open the lid.
4. Put the cooker again on hit and this time with high flame
5. Then give rest of the garlic, oil, ginger and onion into the cooker and fry it till the mutton cooked.
It taste sweet and sour…

Tuesday, March 3, 2015

তর্ক করতে ইচ্ছা করেনা (I don't like arguing with people)



[English version has given below]

কাজে কর্মে মানুষে মানুষে মতভেদ তো থাকবেই, ফলে শুরু হয় যুক্তি তর্কের পালা, যে প্রমাণ করতে পারে যুক্তি দিয়ে, তার সিদ্ধান্ত সবাই মেনে নেয়।

In every work, people can have different opinion, that’s natural. The best way is everybody should put their point and whose logic is more logical, will accept all.

নাহ বিষয়টা এত সহজ নয়. আর গোলমালটা বাঁধে যুক্তি তর্কের সময়। দেখা যায় কেউ হয়ত গলা চড়া করে কথা বলে, যুক্তি না থাকলেও ওরটা অন্যের মেনে নিতে হয়, কেউ যুক্তিতে না পেরে ব্যক্তিগত আক্রমন করে, কেউ যেটার উত্তর যানেনা সেটা এড়িয়ে অন্য কথা টেনে আনে আটকানোর জন্য, কারো চিন্তা চেতনা "তাল গাছ আমার" নীতিতে চলে, মানে তোমরা যত খুশি মামলা মোকড্ডমা করো, তাল গাছ আমার।

Nope, real life isn't that easy. And more problem rises where all start arguing. Some people raise their voice too high that no one can deny that (May be in fear), no matter how wrong they are. Some people start attacking personally when they understood their logic isn't strong enough to fight. Some just bring other issues to avoid the main topic. Some don’t care what others are saying, they only believe they are always right.

আমি কি করি? কারো কথার উপর কথা বলা ভালো মনে করিনা, তাই অপেক্ষা করি, শেষ করতে দেই ও কি বলতে চাচ্ছে। অন্যকে সুযোগ দেই যা বলার বলতে, এতে দেখা যায়, যা হয়তো আমি বলতাম সে বলে দিচ্ছে, আমার আর বলতে হলোনা, একই কথা বার বার বলার তো দরকার নেই। একারনে সবাই যখন কথা বার্তা বলে চুপ করে, তারপর আমি বলি, যেটা বাকি আছে, আর কেউ বলেনি।

Now question is, what do I do in these situations? I don’t raise my voice on others. I wait and listen. I let others to say first. Sometimes in group others says first what actually I wanted to share. And then I even don’t need to say anything. So, when others discussing any matter I keep quiet and listen, when all finishes I only raise those things which no one brought.

তর্ক আমি একদমই করিনা, যদি বুঝতে পারি যে আমার সাথে আছে, তার কোনো ইচ্ছাই নাই আমার কথা রাখার, সেখানে শুধু শুধু তর্ক করে লাভ কি। যা মন চায় বলুক, খুশি থাকুক।

I don’t argue at all. Especially when I understand the person don’t have any intention to listen to me. So, I let people say whatever want to say and let them be happy.

যে শুনতে চায়না, চিন্তা করে দেখতে চায়না আমি ঠিক বলছি কিনা তাকে বা তাদের আর কি বলব.

Who doesn’t want to listen, don’t want to consider what I want to say, why should I tell them my thoughts?





Sunday, March 1, 2015

৫০ পয়সা (50 Poisha)

[English version has given below]

আমি সাধারনত: কিছু হারিয়ে ফেলিনা, তাই কোন কিছু হঠাত খুঁজে না পেলে খুব মনোযোগ দিয়ে খুজতে থাকি। এবং এক সময় পেয়েও যাই :) (দু একটা ব্যতিক্রম ছাড়া)

এই ঘটনা থেকে ব্যাপারটা কিছুটা বুঝতে পারবেন।... স্কুলে ক্লাস ৫ এ পড়ি। স্কুলের মাঠের ওপারে (আরআরি ভাবে মাঠ পার হতে হয়) একটা ছোট্ট টিনের দোকান, আমরা 50 পয়সাচানাচুর কিনে খেতাম এখান থেকে, এই রকম স্বাদ আর কোনো চানাচুরে পাইনি, এতো মজা ছিলো। আর আমি মাঠ হেটে পার হয়েছি, এমন দিন মনে করতে পারিনা, সব সময়ই মনে হয় এক দৌড় দিতাম। তখন ফ্রক পড়তাম, ফ্রকের সামনে 2টা পকেট ছিল। আমার রুমাল আর টাকা তাতে রাখতাম। ভুমিকাটা মনে হয় বেশি বড় করতে হলো ..... একদিন চানাচুর কেনার জন্য দোকানিকে ১ টাকা দিলাম, সে ৫০ পয়সা ফেরত দিল। পয়সাটা পকেটে রেখে এক দৌড়ে ক্লাসে চলে আসলাম। এরপর পকেটে হাঁত দিয়ে দেখি পয়সা নেই! কি করি! আবার মাঠে গেলাম, পুরো মাঠের  (যথেস্ট বড়) ঘাসের মধ্যে খোজা শুরু করলাম। অদ্ভুত ব্যাপার হলো, বেশিক্ষন খুজতেও হলনা, পেয়েও গেলাম। কি যে খুশি হয়েছিলাম। আবার পকেটে রেখে ক্লাসে ফেরত আসলাম। এবার হেঁটে হেঁটে... (খুব শিক্ষা হয়েছে, পকেটে পয়সা নিয়ে আর দৌড় না :) )


Generally I don't lose anything. If I don't find anything I start searching with deep attention and after a while I just found it. (Well there is little exception too)

Let me tell you a story from my life to make it clearer. I was studying at class 5 on those days. In our school we had a very tiny shop. To go to the shop we had to cross our school field. I can't remember a day when I cross that field by walking to go to the shop. We use to buy chanachur for 50 Poysha. I could never found that taste again anywhere. On those days I use to wear frock and it had two pockets at front, where I use to keep my handkerchief and money. Well my introduction of the story becoming little long...

One day I gave 1 taka to that shopkeeper to buy chanachur and he returned me a coin of 50 pasha (cents). I put that in my pocket and returned to my class with a quick run. And alas! In the class I found I just lost it. And I can't accept it. I went to the field again and start searching the coin at the grasses (The field wasn't a small one). But luck favored me; I didn't have to search a lot. I found it and keep that into the pocket again. Then walked back to my class (no more running with money... I had enough)