Monday, May 12, 2014

রিক্সাওয়ালাদের ইচ্ছা


রিক্সা ওয়ালারা অনেক কষ্ট করে সারাদিন (?) রিক্সা চালান. অনেক কষ্ট করে জীবন ধারন করেন. এমনিই সবাই বলেন. আমি এর পক্ষে নই. আমি জানি যাদের নিয়মিত রিক্সায় উঠতে হয় তারা সবাই ভুক্তভুগী.

ক্লাস ৫ থেকেই আমি বাসা থেকে কিছুটা দুরের স্কুলে পড়তাম. তাই রোজই রিক্সা করতে হত. তখনিই দেখতাম আমাদের এলাকার রিক্সাওয়ালাদের দৌরাত্ব. একজোট হয়ে ভাড়া বাড়াত (এখনও তাই). বাসে আমার কষ্ট হয়. বমি আসে. তারপরও রিক্সাওয়ালাদের সাথে খ্যাচখ্যাচ করার ভয়ে বাসে উঠতাম. ঘন্টার পর ঘন্টা দাড়িয়ে থাকতাম ঠিক ভাড়ায় রিক্সা পাবার জন্য.

এখন ছেলেকে নিয়ে স্কুলে যাওয়া আসার সময় এই ভোগান্তিতে আবার পরেছি. এই এলাকার রিক্সাওয়ালাগুলো বউ দিয়ে কাজ করিয়ে রোজগার করে. নিজের চা বিড়ি ফোকার টাকা হলে আর কাজ করেনা . কখনো কখনো তাও বউ বা বউদের দিয়ে কমিয়ে নেয়. যে হঠাত কোন কারনে বিপদে পরে রিক্সায় ওঠে সে কয়েকগুন বেশি দিতে পারে, যে রোজ যায় তার পক্ষে এত বেশি দেয়া সম্ভব না. অন্য এলাকায় যেখানে ১০টাকার বেশি নিবে না, সেটা এরা ৫০/৬০ টাকা অবলীলায় চাবে. মেজাজ/খারাপ ব্যবহার তো আছেই...
Post a Comment