Saturday, April 25, 2015

আরেকজনকে সাহায্য করার সময় যা ভাবি (What we think when we help others)

[English version has given below]

আমরা আরেকজনকে কোনো সাহায্য করার সময় ভাবি... কাজটা কি ঠিক করছি? এতে কি আমার কোনো ক্ষতি হবে? সে আমার জন্য কি করেছে যে আমি তাকে সাহায্য করতে যাব? তাকে সাহায্য করলে আমার কি উপকার হবে? শুধু শুধু সময় নস্ট করছিনা তো? সে আমার যতটুকু উপকার করেছে, আমি তাকে ঠিক ততটুকুই সাহায্য করবো, এর বেশি কেন করতে যাবো?

এবার চলুন একটু অন্য ভাবে চিন্তা করি, আমি প্রতিদিন কত মানুষের সাহায্য নেই? রিক্সাওয়ালা রিক্সাচালানোর জন্য পয়সা নিয়েছে, তারপরও বাড়ির সামনে পানি দেখে আরেকটু ভিতরে টেনে কোনভাবে তুলে আপনার ছেলেকে পানি থেকে বাঁচিয়ে ঘরে তুলে দিল, কোন বিনিময় ছাড়াই। স্কুলের দারোয়ান শুধু দরজা পাহাড়া না দিয়ে আপনার ছেলে যখন গাছে উঠেছে, ওকে ধরে নামিয়ে দিয়েছে। আপনার বস আপনার ভুল না ধরে নিজেই অনেক কিছু সংশোধন করে নিয়েছেন। আপনি হঠাত রাস্তায় পরে গিয়েছেন, কোনো বিনিময়ের আশা না করেই কেউ সব তুলে আবার আপনার হাতে তুলে দিয়েছেন। আপনি কম্পিউটারে যে সব ফ্রি সফটওয়ার ব্যবহার করছেন, সেটা কেউ তৈরী করেছে, আপনি কাপড় মেলে কোথাও গিয়েছেন এরই মধ্যে বৃষ্টি এসেছে আর কেউ সে কাপড় তুলে রেখেছে, দুরে কোথাও গিয়েছেন আরে পাশের বাড়ির মানুষ নিজের বারান্দা থেকে পানি ছুড়ে আপনার গাছে পানি দিয়ে দিয়েছে... এমনি প্রতিদিন আরো কত কি...

সবাইকে প্রতিদান দেয়াও সম্ভব না। তাই আপনি যখনই  পারবেন, সাধ্যমতো অন্যকে সাহায্য করুন। এটা আপনার এবং অন্যের সবার জন্য ভাল। ভালো কাজের প্রভাব পরোক্ষভাবে সবাই পায়। মনে রাখবেন, কেউ গাছ লাগিয়েছিল বলেই রাস্তায় আপনি ছায়া পান। 

Before we help other, we started thinking... are we doing the right thing? Will it create problem for me? Did is person helped me that I will help him? Whatever this person did for me, will return only that much, nothing more. Why should I help more?

Now let's think about it, in other way, everyday from how many people we take help? Do we or can we return always? Rickshaw puller took money from you to pull the rickshaw, but he saw your son having trouble to get down from his rickshaw he helped him. They school guard's job is to keep an eye on the main gate. But when your son climbed up on the tree, he gets him down. Your boss sometimes corrects your work without any complain. You may fall on the road and passerby helped to collect your things and hand over to you. The free software you are using in your computer is developed by others. When the rain came, someone took your clothes from outside to prevent it to get it wet. When you go outside for couple of days, your neighbor throws water from their balcony to your plants to keep those alive. There are many more...

You can't return peoples favor always. So, whenever you get chance help others. It’s good for both you and others. Every good work has direct and indirect influence to the society. Always remember, someone planted a tree that's why you are getting shades on the sunny road....

Friday, April 24, 2015

বৃটিশ আমলের মাটির পাত্র (Mud pot from British era)


[English version has given below]

কটকা গিয়েছেন? এটা সুন্দর বনের দক্ষিনে এক অভয়ারণ্য। এখানে বনের মাঝে একটু ফাকা দেখবেন সাগরের পাশে। সেখানে ভাংগা পট বিছানো, বেশ অনেক খানি জায়গা জুড়ে। অজস্র পট থেকে কিছু নেড়ে চেড়ে দেখলাম। এগুলোতে বৃটিশ আমলে পানি ফুটানো হতো। লবন উৎপাদনের জন্য। কোন কোন পট নতুন, কোনটাতে পোড়ানোর দাগ। আরেকটু সাগরের তীরের দিকে গেলে দেখা যায় পুরানো ইট। এখানে ইটের চুলা ছিল। বেশ কিছু আস্ত পট পাওয়া গেল এখানে।

Source: https://www.ldeo.columbia.edu/aggregator/sources/23


বৃটিশরা বাংলাদেশিদের ধরে এনে এখানে বাধ্য করত থাকতে। অনেকটা দাসের মতোন। ছেড়ে দিয়ে চলে যেত ৬ মাস বা ১ বছরের জন্য। বেচারাদের কোন নিরাপত্তা ছিলনা। ওরা বাঘের ভয়ে উচু জায়গায় বাসা বানিয়ে থাকত। বনের ভিতরে এখনও তার প্রমান পাওয়া যায়। তবে আমরা এত গভীরে যাইনি।

এই জায়গাটি সর্ব সাধারনের জন্য উন্মুক্ত। যে কেউ এখানে এসে পট নিয়ে যেতে পারেন (সুভেনিয়র হিসাবে)। এক সময় হয়তো দেখা যাবে, একটা পটও নেই। 


Have you ever been to Katka? It is situated at the southern side of Sundarban (Mangrove forest). While walking through the jungle we found a wide open space near the beach. And we found hundreds of mud/clay pot on that open space. It was a huge space. From those pots I checked some. Some were broken, some were new (in good condition) and some has spot of fire. These pots were used to boil water from the sea to make salt at British era. They use to catch Bangladesh people to work where (Kind of slave) and keep them here from 6 to 1 year. Those people didn't have any protection from this jungle. They use to build home little higher for the safety from tigers. We didn't go deep jungle to see their houses.

Source: https://www.ldeo.columbia.edu/aggregator/sources/23


When we go little close the sea are we found some old bricks. These were use to make burners to hit water. We found some unbroken pot over here.

This place is totally open for anyone. So, anyone can take pots from here... may be as souvenir... I doubt someday people won't find anything over here.

[October 31, 2006]

Thursday, April 23, 2015

এখন বেশি খুশি হতেও ভয় লাগে (I even feel fear to be happy now)

সব সময়ই দেখে আসছি, কোনো বিষয় নিয়ে সুখি হলেও, সেটা বেশিক্ষন স্থায়ী হয়না। তাই এখন বেশি খুশি হতেও ভয় লাগে. ভয় লাগে এই জন্যই যে কোনো অদ্ভুত কারনে আবার না সেটা কিছুক্ষনের মধ্যেই চলে যায়... যাকে বলে একেবারে ফুটো কপাল, যদিওবা ভাগ্যে কিছু থাকে তো সেটা সেই ফুটো দিয়ে চলে যায় :(

I have always seen, I can't feel happy for long moment. Somehow the reason of happiness goes away. Now a day, I even feel fear to be happy; don't know why it may go for ever... like always. In Bangla there is a proverb "Fortune with a hole", so no matter what you have in your fortune goes away through that hole...

Wednesday, April 22, 2015

প্রিয় কেউ পাশে থাকুক (Someone should stay beside me who cares)


[English version has given below]

একটা সময় ছিল। যখন নিজেকে তৈরি করছিলাম একা থাকার জন্য। বিষয়টা বেশ উপকারী তা এখন বুঝি। মাঝে মাঝেই দেখি, আমার পাশে কেউ নেই। যেখানেই যাই না কেন একাই যেতে হবে।

তারপরও মন চায়, প্রিয় কেউ পাশে থাকুক। সব সময় সাথে কাজ করবে ঠিক তা না। আমার আশে পাশে থাকলেও চলে। যখন এমন কেউ আশে পাশেও থাকে, হয়ত নিজেকে নিয়েই ব্যস্ত থাকে, তারপরও আমার মন খুশিতে কিরকম যেন ভরে ওঠে। আপন মনেই হয়তো নাচতে থাকে। সে সময়, আমি যাই করিনা কেন, খুব ভালো ভাবে আনন্দের সাথে করতে পারি। হয়ত যার জন্য এতো আনন্দ, সে টেরও পায় না...

উদাহরণ দেই, যেমন ব্লগে কাউকে কাউকে খুব ভালো লাগে, আমি যখন ওনলাইনে থাকি, তখন যদি তারাও অনলাইনে থাকে, খুব ভালো লাগে ব্লগে পোস্ট করতে, কমেন্ট করতে। অথচ তাদের সাথে কোন কথাও হয় না....

[১৮ ই অক্টোবর, ২০০৬]

Long time back, I prepared myself to stay alone. Now I understand, that was really very useful. Because sometimes I found myself alone, no one is there for me. Like I may need to go somewhere or have to complete a work, and I found myself alone and I knew I had to complete it like that.

But still my heart wants some company with me, whom I like. That person doesn't need to work with me always. They can just stay beside me. When that kind of person stays near me (May be they kept busy with their own work), don't know why my heart blooms with happiness. Like it (heart) started dancing inside me. On that time, no matter what kind of work I do, I do it with pleasure. And that person may not notice at all, for whom I am feeling like that.

Let me give you an example, in the blog I like some people. When I came online and I see them online too, I feel very good with blogging and commenting. Though I may not talk with them at all...

[October 18, 2006]

Tuesday, April 21, 2015

একটু আলাদা রকম নাস্তা (Little different breakfast)

ঘরে খুব সামান্য ময়দা আছে। ভাবলাম, এই দিয়ে রুটি বানালে পেট ভরবে না। নিমকপারা বানানো যেতে পারে। তাহলে আমি চা দিয়ে খেতে পারবো, আর শাফিন বিস্কুটের মতো খেয়ে নিবে। কিন্তু ময়দায় ভুল বসত: পানি বেশি হয়ে গেল। এতে তেল, লবন আর কালি জিরা মেশানোর পর বুঝলাম, এই দিয়ে আর যাই হোক, নিমকপারা হবে না। 

I found in my kitchen I have very small amount of flour.  I can't make ruti (Pan Fry bread) with it, because that won't be enough to fill our stomach. But if I make Nimokpara then I can take it with tea and my son can have it like biscuit. After starting making it, I found by mistake I have given more water than it's needed. I mix it with oil, salt and black seeds and understood, I can't make Nimokpara with it.



আর ময়্দাও নেই যে মিশাবো। তাই বিকল্প ব্যবস্থা হিসাবে চামচ দিয়ে অল্প অল্প করে নিয়ে ডুবো তেলে ভাজলাম। 

So, I have to make something else. I take small amount of mixed flour with spoon and fry it in deep oil till it became brown or reddish...



বেশ সুন্দর গোল গোল বিস্কুটের মতো হলো। খেতেও বেশ।  আমার সকালের চায়ের সাথে টা আর শাফিনের বিস্কুট নাস্তা হয়ে গেল.... :) শাফিন শুধু একবার মন খারাপ করে বলল, আমি ভেবেছিলাম তুমি চিকেন নাগেট দিচ্ছো নাস্তায় ....

Yeah, it became kind of round shape biscuit. It tastes good. I took it with my morning tea and Shafeen also liked it in breakfast. Though he said, I thought you are giving me chicken nugget in breakfast...


Sunday, April 19, 2015

সুখি মুখ (Happy face)


[English version has given below]

ঢাকা শহরের মানুষ নাকি খুব সুখি. রাস্তায় যখন বের হই, যে কয়টা মানুষের মুখ দেখি, দেখে মনে হয় খুব সুখে আছে। তবে প্রেমিক-প্রেমিকাকে যখন এক সাথে দেখি, এরা সব সময়ই সুখি, তা সে যেখানে যে অবস্থাতেই থাকুক না কেন। যেমন, বাস কাউন্টারে যখন দাড়াবেন, বাসের দেরি হলে সব মানুষ মহাবিরক্ত মুখে দাড়িয়ে থাকে, তবে টোনাটুনিকে দেখবেন, এতো বিরক্তির মাঝেও সুখি মুখে গুটুর গুটুর গল্প করছে। ভালই লাগে, কেউ তো সুখি! তবে এর কারন পুরোপুরি ব্যাক্তিগত।

কিছুদিন আগে গাড়িতে ফেরার সময় দেখলাম, দুজন নিম্নবিত্ত (পোষাক দেখে আন্দাজ করলাম) মহিলা যাচ্ছেন। দুজনের হাতেই নতুন বড় জালি চামুচ (ভাজাভুজি করা হয়ে যে চামুচ দিয়ে)। তবে চামুচের মান মনে হলো ভালো না। দুজনেই চামুচ ধরে দেখছে, নিজেরা কথা বলছে, খুব খুশি মুখে, অনেক কষ্টে হাসি চেপে আছে। মনে হলো খুব কম দামে হঠাৎ পেয়ে গেছে, দুজনে দুজোড়া কিনে নিয়েছে।
ওদের সুখি মুখ দেখে এতো ভালো লাগল। কত সামান্য বিষয় নিয়েই না দুজনে কত খুশি! :)


From a survey it’s been said the people of Dhaka city are very happy. When I go out, on road, the faces I have been watched are seems having happy life. Especially love birds. They are always happy, no matter how the situation is. For example, in a bus counter people are waiting for the bus, it was very late, you will see disappointment on every person's face but the love birds. After all these harassment of bus schedule they will find a corner and keep talking with each other with a happy face. You know what, its looks really cute. At least some people are happy, though the reason is totally private.

Few days back, when I was returning home from office, I saw two lower class (guessed it from their cloths) women were walking together. Both of them were holding two big strainer spoons (use to fry). The quality of the spoons wasn't so great, but they were very happy, can't stop laughing and walking and talking... seems both of them got it in discount from any place, so each of them bought two spoons.

I felt really good to see those happy faces. For a very tiny issue they became so happy! :)

[October 13, 2006]

Saturday, April 18, 2015

বৌয়ের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুক প্রোফাইল বানান (Creating Facebook account by using your wife's picture)

অনেকে আছেন যারা ফেসবুকে স্ত্রী আর বাচ্চাদের ছবি দিয়ে বৌয়ের নাম প্রোফাইল খুলেন। এরপর পরিচিত অপরিচিত সকলকে বন্ধু বানান। কথা বলেন (মহিলা সেজে). নিয়মিত ছবি দেন বউ বাচ্চার। কেউ ভাবতেও পারবেনা এটা আসলে কার আইডি।

কেন এমন করেন? বউকে সন্দেহ করেন? দেখতে চান অন্যের সাথে তার কি সম্পর্ক? মেয়ে সেজে পরিচিত ছেলেদের দেখতে চান, তারা কে কি রকম আচরন করেন? মেয়ে সেজে মেয়ের সাথে গল্প গুজব করতে চান? মতলবটা কি?

I get to know about some men who create Facebook profile by using wife and kid’s picture. Off course they used their wife's picture as the profile picture and gave gender status female. Then they add friends all known and unknown persons. They talk with them as they are woman. They adds new pictures of their wife and kids regularly. Nobody can guess that this is actually a male.

Why do you do like this? You think your wife is cheating? Someone is trying to hit your wife? You want to see what other men do while talking with a girl? You want to talk with girls by becoming a girl? What's your intention?

Friday, April 17, 2015

গুনবান বাবার ছেলেও কি খুব গুনবান হন? (Does a talented father's son also become talented?)


[English version has given below]

গুনবান বাবার ছেলেও কি খুব গুনবান হন? এমন সব সময় হয়না। দেখা যায় একটু গুন হয়তো পায় ঠিকই, কিন্তু বাবার বা মার মতোন সেই অসাধারণ মেধার কিছু ছেলেমেয়ের মধ্যে আসে না। একটা উদাহরণ দিছি, আমার নানা প্রচন্ড পরিশ্রমি ছিলেন। বাইসাইকেল চালিয়ে ফরিদপুর থেকে ঢাকা চলে আসতেন। অথচ আমার মেজমামা শুধু আলসেমির কারনে তার ব্যবসা চালাতে পারলেনা।

তবে একটা জিনিস আমি দেখেছি, শুধু গুন থাকলে হয়না। সেটা পরবর্তি জেনারেশনের কাছে দেয়ার মতোন ক্ষমতাও থাকা লাগে। নানার সামনে কেউ কোন কাজ করতে পারতনা। নানা ক্ষেপে যেতেন সবার আনাড়ি কাজ দেখে, তারপর নিজেই করতেন।

আমি নিজে ছোট থাকতে দেখেছি। আমার খালাত বোন পাট নিয়ে দড়ি বানাচ্ছিল। নানা ঘরের জানালা দিয়ে কিছুক্ষন দেখে এক ঝাড়ি মারলেন "ওমবাই করতে হয় নাকি, এই দিকে নিয়ে আয়"। আশা আপা দড়িদড়া নানাকে দিয়ে দিল। নানা নিজেই বুড়ো বয়সে দড়ি পাকাতে লাগলেন। আশা আপা কিছুক্ষণ দেখে, কোথায় যেন চলে গেলেন।


Does a talented father's son also become talented? Well it doesn't happen always. Sometimes children inherit some quality but not like their parent. Let me give you an example. My grandfather (Maternal) was very strong and good skilled person. He was a very hard working person. He used to make journey from Faridpur to Dhaka by riding his own bicycle. But his second son couldn't succeed in business only because of less attentive in work.

But one thing I have noticed, having talent isn't everything, you have to have quality to pass it to your next generation. Let me give you an example. 

We all knew nobody could work in front of my grandpa. He used to become very angry with others less skilled work, so he did it again by himself.

Even I have seen this. When I was a kid I have seen my cousin (maternal) was trying to make a rope with jute. My grandpa saw this for some second then screamed, "Is this the right way to make a rope, bring it to me!" My cousin sister Asha brought everything to my grandpa. The old man started making the rope by himself. My cousin stood there for some minutes then go away. Learning process ended.

[October 03, 2006]

Thursday, April 16, 2015

প্রকৃতি থেকে বিনা পরিশ্রমে পায় বলেই ধরে নিয়েছে সব সময়ই পাবে (They get it from nature, so take it for granted)

[English version has given below]

ভৌগোলিক কারনে বাংলাদেশের আবহাওয়া বেশ ভালো। এখানে সারা বছরই প্রচুর বৃষ্টি পরে. এখানকার বৃষ্টির পানি পরিস্কার (দুষন মুক্ত). বাংলাদেশের মধ্যে প্রবাহিত হচ্ছে প্রচুর নদী. এবং অধিকাংশই মিষ্টি পানির নদী.

এরপরও এদেশে রয়েছে সুপেয় পানির অভাব. কারন মানুষের সচেতনতার অভাব. যেহেতু প্রকৃতি থেকে তারা বিনা পরিশ্রমে সব সময় পানি পেয়ে আসছে, তাই এর গুরুত্ব অনেক কম এদেশের মানুসের। জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে নদী নালা সব ভরে ঘরবাড়ি, রাস্তা এসব তৈরী করে যাচ্ছে। নদীতে যত্রতত্র নানা আবর্জনা ফেলছে। ফসলের কীটনাশক বৃষ্টির পানিতে ধুয়ে নদীতে পড়ছে। নানা কলকারখানার বিষাক্ত পদার্থ নদীতে ফেলা হচ্ছে। পানির প্রবাহ কমে যাওয়ায় নদীতে পলি জমে নদী ভরে যাচ্ছে। ইত্যাদি নানা কারনে নদীর পানি ধীরে ধীরে দুর্লভ হয়ে উঠছে।

সব শহরের মানুষই তাই পানির কস্ট পান। এদিকে প্রচুর বৃষ্টিপাত হলেও এর পানি ধরে রাখার কোন ব্যবস্থা এদেশে নেই. শহরে প্রচুর বড় ভবন আছে।  এখানকার ছাদকে আমরা সহজেই পানি ধরে রাখার জন্য ব্যবহার করতে পারি। মজা পুকুর গুলো পরিস্কার করে, আরো গভীর করে পানি ধরার ব্যবস্থা করতে পারি। এমনকি বাড়িতে বাড়িতে বালতি বোল দিয়েই পানি ধরে রাখতে পারি, কিন্তু এসবে এদেশের মানুষের আগ্রহ নেই। অথচ সবাই পানির কষ্ট পাচ্ছে।

Because of geographical location Bangladesh got God gifted good weather. Whole year we have rain here. The rain water is clean and healthy (no chemical). Lots of river and channel are passing through Bangladesh and most of their water is good (not salty).

But still people of this country faces drinking water (fresh water) problem. Though they use to get water from nature without any work, they take it for granted. So, they are not aware to save good water. As population is growing very fast in this area people are covering many low land or pond to make houses and roads. Here people are throwing all dirt into the river (including dead cow), rain water drains all pesticide to the water, even chemicals from the factories also dump into the river. River flow current reducing day by day, which drops mud on river basin. So, for many reasons clear water is becoming rare to this country.

As a result, all cities are facing water problem. But still people are not taking any initiative to catch rain water. In the cities there are many big and wide buildings; people can easily use these roofs to catch rain water. People can clean ponds and other water holder to hold enough water for their needs. Even at homes people can hold water simply by using big bowls. But people are so use to get water from nature that they don't even think to utilize nature's water or store for dry season.

Saturday, April 11, 2015

প্ল্যানিং এর সুবিধা (Benefits of planning)

[English version has given below]
রান্না করতে মজাই লাগে, তবে সময় পাইনা। সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো ব্যাপারটা খুব কঠিন মনে হয়। কোনটাতে কখন, কি , কি পরিমানে, কিভাবে দিতে হয়, এটা মনে রাখাটা খুব কঠিন মনে হয়। হয়ত কয়েক বছরে একটা আইটেম রিপিট করতে যাই বলেই তালগোল পাকিয়ে যায়।

কিছুদিন আগে হঠাৎ রান্নার অনুরোধ পেলাম। বেশ ভড়কে গিয়েছিলাম, কি করে কি করবো! যাই হোক পাশ থেকে একজন খুব সাহস দিল এবং সাহায্যও করেছে পরে অনেক। আমি যে আইটেমগুলো করলাম সেটা হলো পোলাও, পটল ভাজা আর সালাদ। খাবার গুলো খাওয়া গেছে, অন্তত: ফেলে দিতে হয়নি। যা বলার জন্য এতো বড় ভুমিকা....


রান্না শুরু থেকে টেবিলে গুছিয়ে দিতে সময় লাগল ১ ঘন্টা (অনেক পাকা রাধুনির কাছে এটা কিছুই না)। বাড়ির লোকজন খুব অবাক হয়ে গেল, এতো তাড়াতাড়ি কি করে এই আনাড়ি সব করলো? আসলে প্রজেক্ট ম্যানেজার হবার পর থেকে সারাক্ষন প্ল্যানিং এর উপর কাজ করি। ফলাফল হলো এখন সব কিছু প্ল্যান করে করি। রান্নার সময় কি কি লাগবে, কোনটার পর কোনটা করবো, কোন কাজটা চুলায় দিয়ে অন্যকাজ করা যায় এই সব মনে মনে আগেই ঠিক করে ফেলেছিলাম, তাই কাজ শুরু করার পর, এক মুহুর্ত থেমে থাকিনি, 2 চুলোই একসাথে চাল দেয়া, পানি গরম, পটল ভাজা, ডিম সেদ্ধ (ডেকোরেশন এর জন্য) একের পর এক করেছি, সাথে পটল সাইজ করা, সালাদ কাটা এসব চলেছে।



I like cooking but don’t get enough time to do so. Main problem is I think it’s a tough job. I thought it’s really very difficult to memorize in which item, what ingredients you will add and in which amount. Generally I had to repeat one item after several years, so it became more difficult to remember how I cooked it before.

Few days back, suddenly I got a request to cook for some people. I was really shocked… by thinking what and how will I cook. Anyway one person was there to give me courage and later stayed beside me and helped me a lot in cooking. 


From starting cooking to serve I took only 1 hour (well for some expert it might be nothing). People of that house became really surprise how this new chef did all these in this short time. Actually after becoming a project manager I always stay on planning. So, before starting cooking I had planned, what are the items I will cook, what are the ingredients I will need and how to prepare them, which item will go on heat first, which need time to cut etc. So, I didn’t stop for a second, just keep working on giving rice on heat, hot water, frying pointed gourd , boiling egg (for decoration), preparing salad etc one after another.